শনিবার ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুর মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনি প্রকল্পের শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী ২৫ ঘন্টা অবরুদ্ধ

দিনাজপুর প্রতিনিধিঃধর্মঘট চলার ১ মাস ১৩ দিন পরও শ্রমিকদের ৫ দফা দাবি মেনে না নেয়ায় গতকাল সোমবার সকাল ৯টা থেকে আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টা পর্যন্ত মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনি এলাকা ঘিরে রাখে খনির চাকুরী হারানো ২৫২ জন শ্রমিক। অবরোধের ফলে খনির শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী খনি এলাকার বাইরে যেতে না পারায় দিন ভর অনেকটা অনাহারে-অর্ধহারে সময় কাটায়। বেলা ১১ টার দিকে সাবেক ভূমি প্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান (এমপি) মধ্যস্থতায় ও আশ্বাসের ভিত্তিতে শ্রমিকরা তাদের অবস্থান থেকে সরে যায় এবং অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসে খনি কর্মকর্তা কর্মচারীরা।

জানা গেছে, মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনির ৩’শ ৮ শ্রমিক চাকুরীচ্যুত ৫ শ্রমিককে পুনর্বহাল, সকল শ্রমিককে পেট্রোবাংলার অধিনে স্থায়ী নিয়োগ প্রদান, ডিপ্লোমাধারী শ্রমিকদের চাকুরি নিয়মিতকরণ, শ্রমিক ছাটাই বন্ধ ও সরকার ঘোষিত শতকরা ২০ ভাগ মহার্ঘ ভাতা প্রদান। এই ৫টি দাবিতে  গত ২৫ নভেম্বর থেকে একটানা শ্রমিক ধর্মঘট শুরু করে। ইতিমধ্যে পার্বতীপুর উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ও খনি কর্তৃপক্ষের সাথে ধর্মঘটী শ্রমিকদের দফায় দফায় সমঝোতা বৈঠক হলেও তাদের দাবির ব্যাপারে কোন সুরাহা হয়নি। তবে খনি কর্তৃপক্ষ শ্রমিক আন্দোলনের মুখে ডিপ্লোমাধারী শ্রমিকদের চাকুরি নিয়মিতকরণ প্রক্রিয়া শুরু করা ও বিধি বহির্ভূতভাবে শ্রমিক ছাটাই না করার প্রতিশ্রুতি সহ পেট্রোবাংলার অন্যান্য কোম্পানির শ্রমিকেরা মহার্ঘ ভাতা পেয়ে থাকলে তাঁদেরও দেওয়ার আশ্বাস দেয় খনি কর্তৃপক্ষ। এছাড়া বাড়তি সুবিধা হিসেবে আগামী জানুয়ারী মাস থেকে শ্রমিকদের বেতন ২ হাজার ৫’শ টাকা বৃদ্ধি করা হয়।

সুত্রমতে, বর্তমানে একজন শ্রমিক সর্বোচ্চ ১৫ হাজার ৩৮০টাকা বেতন পেয়ে থাকে। সেখানে জানুয়ারী মাস থেকে তাদের ১৭ হাজার ৯৬১ টাকা বেতন এবং ২০১৪ সালের জুলাই থেকে ১৯ হাজার ৭০৭ টাকা করে বেতন দেওয়ার আশ্বাস দেয়া হয়। খনির উৎপাদন, রক্ষণা-বেক্ষণ ও পরিচালনার দায়িত্বপ্রাপ্ত বেলারুশের নতুন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জার্মানিয়া ট্রেষ্ট কর্পোরেশন (জিটিসি) খনির শ্রমিক সরবরাহকারী আউটসোর্সিং ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ব্লু স্টার সার্ভিসেসের মাধ্যমে প্রস্তাবিত শর্তে গত ১৮ ডিসেম্বরের মধ্যে ধর্মঘট ত্যাগ করে কাজে যোগদানের জন্য লিখিত সম্মতি দানের নোটিশ দেয়। এতে রাজি হয়ে মাত্র ৫৬ জন শ্রমিক কাজে যোগদানের সম্মতিপত্র জমা দেয়। এদিকে গত ৩১ ডিসেম্বর ব্লু স্টার সার্ভিসের সাথে ৩’শ ৮ জন শ্রমিকের চাকুরীর মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। এ অবস্থায় ২’শ ৫২ শ্রমিক ধর্মঘট চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তে অনঢ় থেকে গতকাল সোমবার থেকে খনির মূল ফটক ও অন্যান্য বর্হিগমনের রাস্তা ঘিরে রেখে অনির্দিষ্টকালের অবরোধ গড়ে তোলে।