শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ ২৯শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুর সাঁওতাল পল্লীতে লুটপাটের ঘটনার মামলায় গ্রেফতার-৭

মনজুরুল আলম, ষ্টাফ রিপোর্টার, পার্বতীপুর: পার্বতীপুরে চিড়াকুটা সাঁওতাল পল্লীতে হামলা, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ, শ্লীলতাহানির ঘটনায় ৩০৭৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন আদিবাসী নেত্রী নীলিমা হেমব্রম। আসামীদের মধ্যে ৭৪ জন নামিয় আসামী রয়েছে। মামলা দায়েরের পর পুলিশ গত শুক্রবার দিবাগত রাতে এলাকার বিভিন্ন গ্রামে সাড়াশি অভিযান চালিয়ে ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতবার হলেন, মোশারফ হোসেন (৩৪), এমরান আলী (২৩), শামসুল হক (৪৮) হাসান আলী (৪০), মামুন মন্ডল (২০), মোক্তার শাহ (৪০) ও এরশাদ আলী (১৯)। গ্রেফতারকৃতদের গতকাল শনিবার বিকেলে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। সেই সাথে পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ গতকাল শনিবার পর্যন্ত সাঁওতালদের লুটপাট হওয়া ৪০ গরু, ১২ ছাগল, ২ভেড়া, ১৫ বস্তা চাল, ১০ বস্তা ধান, ৩ সেলাই মেসিন, ৪ শ্যালো মেশিন, ৫রিকশা ভ্যান ও ২ বাইসাইকেল উদ্ধার করেছে।

উল্লেখ্য, গত ২৪ জানুয়ারী দিনাজপুরের পার্বতীপুরের মোস্তফাপুর ইউনিয়নের হাবিবপুর গ্রামে ১৪ একর জমির মলিকানা নিয়ে চিড়াকুটা গ্রামের সাঁওতালদের সাথে বড়দল সরকার পাড়া গ্রামের জহুরুল হকের লোকজনের সংঘর্ষ হয়। এতে তীর বিদ্ধ হয়ে মারা যায় জহুরুল হকের ছেলে শাফিউল ইসলাম সোহাগ। পরে বিক্ষুব্ধ দুষ্কৃতিকারীরা সাঁওতাল পল্লীতে হামলা চালিয়ে ৬৮টি পরিবারে লুটপাট ও কমপক্ষে ২০টি বাড়ীতে অগ্নিসংযোগ করে। সেই সাথে দেড় শতাধিক গবাদিপশুও নিয়ে যায় হামলাকারীরা। অপরদিকে সোহাগের মৃত্যুতে দায়ের করা মামলায় ১৯ সাঁওতালকে গ্রেফতার করেছে পার্বতীপুর থানা পুলিশ।

এব্যাপারে পার্বতীপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহমুদুল আলম বলেন, সাঁওতাল পল্লীতে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ৩০৭৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সেই মামলায় ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সেই সাথে লুটপাট হওয়া মালামাল উদ্ধার অব্যহত আছে।

Spread the love