সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পীত সাগরে উ. কোরিয়ার জাহাজ লক্ষ্য করে গুলি

1-North_Korean_Navy_shipদক্ষিণ কোরিয়ার নৌজাহাজ থেকে গতকাল শুক্রবার উত্তর কোরিয়ার দু’টি টহল জাহাজ লক্ষ্য করে কয়েক দফা সতর্কীকরণ গুলি ছোঁড়া হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা দুই দিনের সফরে সিউল পৌঁছানোর পরই এ ঘটনা ঘটল।  পীত সাগরের বিতর্কিত এলাকায় দক্ষিণ কোরিয়ার পানিসীমার এক নটিক্যাল মাইল ভেতরে ঢুকে পড়ার পর উত্তর কোরিয়ার দুই জাহাজকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া হয় বলে দাবি করেছেন সিউলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা। তিনি বলেন, উত্তর কোরিয়ার টহল জাহাজগুলো হয়তসাগরের ওই এলাকায় বেআইনি কাঁকড়া শিকারে জড়িত কয়েকটি চীনা নৌকাকে তাড়া করেছিল বা দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক নজরদারি খতিয়ে দেখার জন্য সীমান্ত লঙ্ঘন করেছিল। অবশ্য গুলি চালানোর পর জাহাজ দুইটি দ্রুত উত্তর কোরিয়ার সীমান্তে ঢুকে পড়ে। মাছ ধরার নৌকাগুলোকে সীমান্ত অতিক্রম করা থেকে বিরত রাখার জন্য বিতর্কিত এই পানিসীমায় দুই কোরিয়ার নৌবাহিনীর জাহাজগুলো নিয়মিত টহল দেয়। উত্তর কোরিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে পীত সাগরের সীমান্ত মেনে নেয়নি। ১৯৫০-৫৩ সালের কোরিয় যুদ্ধের পর মার্কিন নেতৃত্বাধীন জাতিসংঘ এই সীমান্ত চিহ্নিত করেছিল। ১৯৯৯, ২০০২ এবং ২০০৯ সালে এ সীমান্তে রক্তক্ষয়ী নৌ সংঘর্ষ হয়েছে। উত্তর কোরিয়ার টহল জাহাজ এবং জেলে নৌকার পক্ষ থেকে অচিহ্নিত সাগরে সীমান্ত লঙ্ঘনের ঘটনা বিরল কিছু নয়। তবে ওবামার সিউল পৌঁছানোকে কেন্দ্র করে স্পর্শকাতর সময়ে এবারের সীমান্ত লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটল।  সাম্প্রতিক সময়ে কোরিয় উপদ্বীপে উত্তেজনা তুঙ্গে রয়েছে। উত্তর কোরিয়া নতুন করে পরমাণু পরীক্ষা চালাবে বলে বহুমুখী আভাস পাওয়া যাচ্ছে। দেশটি ২০০৬, ২০০৯ এবং ২০১৩ সালে তিন দফা পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা করেছে।