রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মুক্তিযুদ্ধে রাজারব%E

Ffp বীরগঞ্জের বীর সন্তান আমীর উদ্দিন মুক্তিযুদ্ধে রাজারবাগে প্রথম শহীদ পুলিশ সদস্যের বাড়ি ৪৩ বছর পর বীরগঞ্জ থানার ওসি আরমান হোসেন (পিপিএম)  পরিদর্শন করে দশ হাজার টাকা অনুদান ঘোষনা করেছেন।

উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের সম্ভুগাঁও গ্রামের বাসিন্দা আমীর উদ্দিন (পুলিশ সদস্য) ১৯৭১ইং সালে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে কর্মরত থাকা অবস্থায় ২৫মার্চ কালরাতে পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর সাথে মুক্তিযুদ্ধে মোকাবেলা করা সময় প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত হন। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে নিখোঁজ থাকেন আমীর উদ্দিন ১৬ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন হয়। মুক্তিযুদ্ধে শেষে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে খোজ নিতে গিয়ে আমীর উদ্দিনকে খুজে পাওয়া যায়নি। আমির উদ্দিনের অনুপস্থিতিতে স্ত্রী আবেদা খাতুনের উপর শুরু হয় পারিবারিক ও প্রতিবেশী মানুষের নির্যাতন। মাত্র তিন শতক জমির উপর বসত বাড়ি পরিবারের লোকের দখল করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালায়। সকল নির্যাতন উপেক্ষা করে ৩টি মেয়ে আনোয়ারা বেগম, মনোয়ারা বেগম, দেলওয়ারা বেগম ও ১টি ছেলে আজিজার রহমানসহ ভিটে মাটি আকড়ে ধরে অন্যের কাজ করে শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সমত্মানের মুখের খাবার যোগার করলেও লেখাপড়া করাতে পারেনি সন্তানদের। এতিম সমত্মানদের লালন-পালন করে সকলকে বিবাহ দিয়েছেন। একমাত্র ছেলে আজিজার রহমান কল্যাণী বাজারে কুলির কাজ করে বৃদ্ধা মা আবেদা খাতুনসহ সংসার পরিচালনা করছেন।

২০১২ইং সালে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে স্মৃতি স্তম্ভের তালিকায়  আমির উদ্দিনের নামের সুত্র ধরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয় আয়োজিত এক স্বীকৃতি অনুষ্ঠানে ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ স্বৃকৃতি স্বরূপ ক্রেষ্ট হাতে তুলে দেন তার স্ত্রী আবেদা বেগমের হাতে। গত ২৬মার্চ স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে সরকারী পাইলট উচ্চবিদ্যালয় মাঠে মুক্তিযোদ্ধাদের ফুলেল সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে সাবেক কমান্ডার অধ্যাপক কালিপদ রায় তার বক্তৃতায় পুলিশ সদস্য আমির উদ্দিন মুক্তিযুদ্ধে প্রথম শহীদ। শহীদ পরিবারের করুন র্দুদশার চিত্র বর্ণনা করেন। তিনি শহীদ মুক্তিযুদ্ধা  পরিবারের প্রতি প্রশাসনের সুদৃষ্টি ও সহানুভূতির দাবী জানান। উক্ত দাবীর প্রেক্ষিতে বীরগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আরমান হোসেন (পিপিএম) মঞ্চে দাড়িয়ে বক্তৃতায় আবেগ আল্পুত হয়ে দশ হাজার টাকা অনুদান ঘোষনা করেন। ২৭ মার্চ সকালে ওসি মোঃ আরমান হোসেন (পিপিএম) মুক্তিযুদ্ধে প্রথম শহীদ আমির উদ্দিনের জরার্জীন বাড়িতে গিয়ে বিধবা স্ত্রী আবেদা খাতুন ও ছেলে আজিজার রহমানের সাথে সাক্ষাত করে পরিবারের সদস্যদের খোজ খবর নেন।

এ সময় আবেদা খাতুন কান্না জড়িত কন্ঠে বীরগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আরমান হোসেন (পিপিএম) কে জানান স্বাধীনতার ৪৩ বছরেও সরকারী কোন অনুদান পায়নি বরং তার স্বামীর রেখে যাওয়া অংশের ধানী জমি প্রভাবশালী মহল জোর পূর্বক দখল করে আছে। অর্থের অভাবে বিনা চিকিৎসায় শ্রবনশক্তি ও দৃষ্টিশক্তি হারিয়েছি। ৭৬ বৎসর বয়সে বিধবা ও বয়স্ক ভাতা কার্ডের জন্য মেম্বার ও চেয়ারম্যানের দুয়ারে দুয়ারে ঘুরেছি কিন্তু আর্থিক দৈনতার কারনে তা ভাগ্যে জোটেনি। তিনি সরকারের সহযোগিতা বেদখল হওয়া জমি উদ্ধারের জন্য জোর দাবী জানান।

 

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email