রবিবার ১৪ অগাস্ট ২০২২ ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পীরগঞ্জে ৬ পাচারকারীর বিরুদ্ধে মামলা, নিখোঁজের ১০ মাসেও উদ্ধার হয়নি মাসুদ রানা

বিষ্ণুপদ রায়,পীরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার বৃদ্দিগাঁও গ্রামের মাসুদ রানা (৩৫) নাম ব্যক্তিকে ১০ মাস পূবের্ব ভারতে পাচারের ঘটনায় তার স্ত্রী ফরিদা বেগম বাদী হয়ে পীরগঞ্জ থানায় ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। পুলিশ কাউকে গ্রেফতার না করার অভিযোগ এনে গত শুক্রবার বিকালে প্রেসক্লাব হলরুমে মামলার বাদী এক সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

মামলার বাদী ফরিদা বেগম সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, গত ৫ জানুয়ারী বিকাল ৪ টার দিকে আমার স্বামী তার বোন জামাই রমজান আলীকে সঙ্গে নিয়ে পাওনা দারের ৬০ হাজার টাকা পরিশোধ করার জন্য বৃদ্দিগাঁও বাজারে যায়। ১০ মাসে অতিবাহিত হলেও সে আর বাড়িফিরে আসেনি । অনেক খোঁজা খুঁজির পর এক পর্যায়ে জানতে পারি একই গ্রামের ফয়জুল ইসলাম ওরফে আইতু আমার স্বামীকে ভারতে নিয়ে গেছে। পরে স্থানীয় জন প্রতিনিধিদের কাছে স্বামী নিখোঁজের বিষয়ে অভিযোগ করলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বৃদ্দিগাঁও গ্রামের মৃত: রিয়াজ উদ্দীন এর ছেলে ফয়জুল ইসলাম ওরফে আইতুকে নিখোঁজের বিষয়ে চাপ দিতে থাকলে, সে জানায় মাসুদ রানাকে ব্যবসার উদ্দেশে ভারতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। সময় মত সে ফিরে আসবে। এমনি করে দীর্ঘ ১০ মাস অতিবাহিত হলেও মাসুদ রানাকে তারা আর ফিরে পাচ্ছেনা। নিরুপায় হয়ে অসহায় মাসুদ রানার স্ত্রী ফরিদা বেগম বাদী হয়ে গত ৩ অক্টোবর পীরগঞ্জ থানায় ফয়জুল ইসলাম ওরফে আইতু সহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেন।

ফরিদা আরও জানায়, আসামীরা প্রকাশে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ অজ্ঞাত কারনে তাদের গ্রেফতার করছেনা। সংবাদ সম্মেলনে এলাকার সাবেক মেম্বার আজিজুর রহমান ও মাসুদ রানার চাচাতো ভাই মোস্তফা আলম বলেন,আমাদের স্বাক্ষাতে ফয়জুল ইসলাম ওরফে আইনু সহ আসামীরা স্থানীয় চেয়াম্যান এর কাছে ভারতে নিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করেন।

এ বিষয়ে জাবরহাট ইউপি চেয়ারম্যান সবীর উদ্দিন সফির কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, আসামীরা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন,এবং মাসুদ রানা ভারতে মারা গেছে বলে তারা জানান।

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ একে শওকত হোসেন জানান,আসামী ধরার অভিযান অব্যাহত আছে।

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email