শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্রচন্ড যানজটের কবলে দিনাজপুর শহর

বেলাল উদ্দীন, দিনাজপুরঃ তীব্র যানজটের কবলে পরে প্রতি নিয়ত চিড়ে-চেপ্টা হচ্ছে দিনাজপুর শহর বাসী। যত্র-তত্র পার্কিং, ফুটপাত দখলের কারণে সংকীর্ণ রাস্তা আর ট্রাফিক আইন মেনে না চলায় দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে মানুষের চলা-ফেরা। সকাল থেকে রাত্রী পর্যন্ত যানজটে হাস-ফাঁস করছে দিনাজপুরের শহড় জীবন। অত্যাধিক জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে রাসত্মায় চলা ফেরা করতে মানুষের নাভিশ্বাষ উঠছে মানুষের জীবন।

 

১৪৬ বছরের পুরাতন শহর দিনাজপুরের রাস্তা-ঘাট ইঞ্চি পরিমানেও প্রসস্থ হয়নি। বরং বেরেছে জনসংখ্যা যান বাহন। হয়েছে ফুটপাত ও আইলেন্ড দখল। ফলে রাস্তা হয়ে পরেছে সংকীর্ন। এই রাস্তা দিয়ে চলছে ৫ হাজারের বেশী অটো চার্জার, ৮ হাজার রিক্সা ও ভ্যানসহ হালকা ও ভারী নানান যানবাহন। এরা কেউ ট্রেফিক আইন মেনে চলছেনা। ফলে রাস্তা নিয়ন্ত্রন করতে হিমসিম খাচ্ছে বলে জানান কর্তব্যরত আব্দুল রব ট্রাফিক পুলিশ।

 

সোয়া ২লক্ষ মানুষের বসবাস দিনাজপুর শহরের রাস্তার পাশে রয়েছে ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ২৫টির বেশী ব্যাংক বীমা অফিস। অসংখ্য মার্কেট, দোকান পাট, সিনেমা হল, ৩০ টি এর অধিক ক্লিনিক, ৩ টি রেল ক্রসিংসহ পৌর ভবন ও জেলা প্রশাসন ভবন। সর্বপরি শহরের মধ্যখানে বিশাল এলাকা জুড়ে রয়েছে প্রায় দেড়শো বছরের পুরাতন জেলা কারাগার ও রেল ষ্টেশন। এইগুলি সব রয়েছে শহরের ২.৫ কিলোমিটারের মধ্যে। অপরিকল্পিত ভাবে ক্রমান্বয়ে গড়ে উঠা দিনাজপুর শহর এখন পরিণত হয়েছে যানজটের শহরে। ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করে দিনের বেলায় শহড়ে ঢুকছে ট্রাক, বাস ও অন্যান্ন ভারী যানবাহন। বিশেষ করে দিন দিন অটো চার্জারের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় যানজট তীব্র আকার ধারণ করছে। তারা কোন ট্রাফিক আইন মেনে চলাচল করছেনা। বিশেষ করে স্কুলগামী শিশু ও বয়স্ক বৃদ্ধরা চলাফেরা করতে ট্রাফিকসহ অন্য মানুষের সাহায্য নিতে বাধ্য হচ্ছে। পথচারীদের অভিযোগ রাসত্মা দিয়ে চলাফেরা করতে অটোবাইক ও ভ্যানের গুতো খেতে হয়। অনেক সময় রিক্সা ও অটোবাইকে শরীরের জামা ছিড়ে এবং শরীর মাংস পর্যমত্ম ছিড়ে যায়। অহরহ শহরে দূর্ঘটনা ঘটতেই থাকে। তবুও আমাদের করার কিছুই নেই। শীঘ্রই প্রশাসনের সহায়তা নিয়ে অবৈধ রাসত্মা দখল উচ্ছেদ করা হবে বলে জানান দিনাজপুর পৌরসবার প্যানেল মেয়র মুরাদ আহমেদ।

পুরাতন আইন পাল্টে পরিকল্পিত শহড় গড়ে দিনাজপুর বাসীকে স্বচ্ছন্দে চলা ফেরার সুযোগ করে দিবে এমনটি প্রত্যাশা করেন বর্তমান সরকারের উপর দিনাজপুর শহরবাসী। আর এই জন্য দিনাজপুরের সকল সংসদ সদস্যরা এগিয়ে আসবেন এটুকু কামনা শহরবাসীর।

Spread the love