শনিবার ২৫ জুন ২০২২ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রতিদিন ৬০ হাজার টিকিট বিক্রি করা হবে : রেলমন্ত্রী

Ral Ministerপবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। আজ রবিবার সকাল ৯টা থেকে ২৪ জুলাই যাত্রার টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ঢাকা থেকে সাড়ে ১৭ হাজার এবং চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে ৬ হাজার ৮০০ টিকিট বিক্রি হবে। আজ ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে ২০টি কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। তবে আজ টিকিটের জন্য যাত্রীরা স্টেশনে ভিড় জমান সেহরির সময় থেকেই। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড় বাড়তে থাকে।
এদিকে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক জানিয়েছেন, পবিত্র ঈদ উল ফিতরে ঘরমুখো যাত্রীদের কাছে প্রতিদিন ট্রেনের ৬০ হাজার অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে। রবিবার বেলা ১১টায় কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে অগ্রিম টিকিট বিক্রির পরিস্থিতি পরিদর্শনকালে তিনি এ কথা জানান। মন্ত্রী বলেন, ঈদে বাড়ি ফিরতে ইচ্ছুক যাত্রীদের কাছে প্রতিদিন ৬০ হাজার টিকিট বিক্রি করা হবে। যাত্রীদের বাড়ি ফেরা নির্বিঘ্ন করতে সবরকমের কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার। তিনি জানান, টিকিট কালোবাজারি রোধে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। এতে যদি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কেউ জড়িত থাকেন, তবে দোষী প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। এসময় রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার, ম্যানেজার, দায়িত্বরত র‌্যাব, পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন মন্ত্রী।
টিকিটপ্রত্যাশীরা মন্ত্রীর কাছে অভিযোগ করে বলেন, টিকিট ধীরগতিতে দেওয়া হচ্ছে। সকাল নয়টা থেকে টিকিট পাওয়ার কথা থাকলেও অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে না। এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রী বলেন, টিকিট দেয়ার কাজে ব্যবহৃত মেশিনগুলো ধীরগতিতে কাজ করছে। পরের বছর দ্রুতগতির মেশিন দেয়া হবে। টিকিটপ্রত্যাশীরা মন্ত্রীর কাছে আরও অভিযোগ করেন, সকাল ৯টা থেকে অনলাইনে টিকিট পাওয়ার কথা থাকলেও তা পাওয়া যাচ্ছে না। এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নেবেন বলে আশ্বাস দেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, প্রথম দিনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে পরের দিন পদক্ষেপ নেওয়া হবে। যাত্রীরা মন্ত্রীর কাছে টিকিট দেওয়ার সময় বাড়ানোর অনুরোধ করেন। মন্ত্রী বলেন, প্রতিদিন বিকেল ৫টা পর্যন্ত টিকিট দেয়ার কথা থাকলেও যাত্রীদের অনুরোধে সময় বাড়ানো হবে। প্রয়োজনে যতক্ষণ টিকিট থাকবে, ততক্ষণ টিকিট দেয়া হবে।
রেলওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল মজিদ বলেন, সকাল থেকেই পুলিশের পাশাপাশি আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ও রেলওয়ের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা স্টেশনে মোতায়েন রয়েছেন। যাত্রীদের সার্বিক তথ্য প্রদান ও অভিযোগ, পরামর্শ গ্রহণে একটি সহায়তা কেন্দ্র ও একটি তথ্যকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত রাজধানী থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, খুলনাসহ গুরুত্বপূর্ণ সব রুটের টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। আজ বিক্রি হচ্ছে ২৪ জুলাই যাত্রার টিকিট। রেলস্টেশনের ২০টি কাউন্টার থেকে আজ টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। আগামীকাল সোমবার বিক্রি হবে ২৫ জুলাইয়ের টিকিট। মঙ্গলবার ২৬ জুলাই, বুধবার ২৭ জুলাই, বৃহস্পতিবার ২৮ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি হবে। পর্যায়ক্রমে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত টিকিট বিক্রি অব্যাহত থাকবে। আর যাত্রার দিন কাউন্টার থেকে ছাড়া হবে দাঁড়িয়ে যাওয়ার টিকিট। অপরদিকে পূর্বাঞ্চল থেকে এবার ১০টি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর ৪টি চলবে চট্টগ্রাম-চাঁদপুর পথে। দুটি চলবে ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ পথে। আর ঢাকা থেকে খুলনার পথে দুটি এবং পার্বতীপুরের পথে আরও দুটি ট্রেন চলাচল করবে। এছাড়া শোলাকিয়ায় ঈদের জামাতের জন্য ৪টি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email