শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭০তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার আলোচনা সভা

এমআর মিজান ॥ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অমর কৃতিত্বে আমরা পেয়েছি স্বাধীন বাংলাদেশ, একটি মানচিত্র, একটি পতাকা। তিনি এই দেশের জন্য, এই জাতির জন্য নিজের জীবন বিলিয়ে দিয়েছেন। এ জাতির হাতে যে লাল সবুজের জাতীয় পতাকা তুলে দিয়ে গিয়েছেন, সেই পতাকার মর্যাদা আমাদের রক্ষা করতে হবে। সেই সাথে তার যোগ্য উত্তরসুরি জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত শিশুবান্ধব। শিশু কিশোরদের প্রতি তার গভীর মমত্ববোধ জাতি গঠনে অনন্য ভুমিকা রাখে। এ দেশের শিশু কিশোররাও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও আন্তরিক শ্রদ্ধায় সর্বদায় সিক্ত করে। পিতার মত দেশের জন্য, জাতির জন্য নিজেকে বিলিয়ে দেয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭০তম জন্মদিনে এই হোক সবার অঙ্গীকার।

গতকাল শনিবার সকালে এফপিএবি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭০তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা দিনাজপুর জেলা শাখা আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহজাহান নভেল এর সভাপতিত্বে ও সাংস্কৃতিক সম্পদক প্রদীপ কুমার ঘোষের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডাঃ মোঃ আহাদ আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন মেলার সহ-সভাপতি অধ্যাপক আব্দুস সবুর, সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম লিটন। উপস্থিত ছিলেন পাপ্পা চক্রবর্তী, আবুল কালাম আজাদ, জয়ন্ত ঘোষ, এনামুল, রীনা, প্রদীপ কুমার রায়, জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত শিল্পী প্রিয়াংকা দাস চৈতী, বিউটি ঘোষ, সাজ্জাদ, রাফিত, কিরণ, ইমন, ফিরোজ প্রমুখ। পরে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষ্যে ২০ পাউন্ডের বিশাল আকৃতির একটি কেকে কাটা হয়।

উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানটি গত ২৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবার কথা থাকলেও বরেণ্য সব্যসাচী কবি সৈয়দ শামসুল হকের মৃত্যুতে তা স্থগিত করা হয়। গতকাল ১ অক্টোবর শনিবার বর্ণাঢ্য আয়োজনে অনুষ্ঠান সম্পন্ন হলো।

Spread the love