শনিবার ২৫ জুন ২০২২ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা- ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন বৈঠক

pmগার্ল সামিটে যোগ দেয়ার আগেই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সাথে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় (বাংলাদেশ সময় দুপুর দেড়টায়) ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে প্রবেশ করেন শেখ হাসিনা। বৈঠকের আগে শেখ হাসিনার হাতে ওয়ার্ল্ড গার্ল সামিট চার্টার তুলে দেন ডেভিড ক্যামেরন। এরপর তারা বৈঠকে বসেন। প্রায় ১ ঘণ্টার বৈঠক শেষে স্থানীয় সময় সকাল ৯টা ২০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় দুপুর দুইটা ২০ মিনিটে) বের হয়ে গার্ল সামিট ভেন্যুর উদ্দেশ্যে রওনা হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে আজ মঙ্গলবার সকালে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান ডেভিড ক্যামেরন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সেক্রেটারি এ কে এম শামীম চৌধুরী হোটেল হিল্টন অন পার্কলেইনে এক সংক্ষিপ্ত প্রেস বিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
তার আগে সোমবার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার প্রতিনিধি দল নিয়ে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে লন্ডন পৌঁছান। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এ কে এম শামীম চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুবুল হক শাকিল প্রমুখ।
ডাউনিং স্ট্রিটে বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওয়ালওয়র্থ একাডেমি যাবেন ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক এন্থনি লেকের সঙ্গে বৈঠক করতে। জাতিসংঘের অন্যতম প্রতিষ্ঠান ইউনিসেফ বাংলাদেশে শিশুদের শিক্ষা ও উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থা হিসেবে কাজ করে আসছে। ভবিষ্যতে এ সহযোগিতা কিভাবে আরও জোরদার ও বিস্তার করা যায় সে দিকগুলোই বৈঠকে উঠে আসবে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। একাডেমির বাইল্যাটারাল মিটিং রুমে বেলা ১১টায় এ বৈঠক শুরু হয়ে প্রায় আধাঘণ্টা স্থায়ী হবে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
প্রেস সেক্রেটারি জানান, দুই দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়েই দুই প্রধানমন্ত্রীর আলোচনা হয়। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সাথে বৈঠক শেষে সরাসরি গার্ল সামিট স্থলে চলে যান প্রধানমন্ত্রী। প্রেস সেক্রেটারি শামীম জানান, সম্মেলনে মেয়েদের বিরুদ্ধে সামাজিক অপরাধ প্রতিরোধে তার নিজের ভাবনা, বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়নে তার সরকারের চলমান প্রচেষ্টার কথা তুলে ধরবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
এদিকে সফরকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে ব্রিটেনের মিনিস্টার ফর স্টেইট ইন্টারন্যাশনাল ডেভলপমেন্ট ডেজমন্ড সোয়েন, শ্যাডো সেক্রেটারি অব স্টেট ফরেন এফেয়ার্স ডগলাস আলেক্সজান্ডার ও বেশ কয়েকজন ব্রিটিশ এমপির সাক্ষাতের কথা রয়েছে। সামিট শেষে মঙ্গলবার বিকেলেই যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক ইফতার মাহফিলেও যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফারুক ইফতার মাহফিলের প্রস্তুতি চূড়ান্ত বলে নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ও ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক এন্থনি লেইক প্রধানমন্ত্রীকে লেখা আমন্ত্রণপত্রে বাল্যবিবাহ মোকাবিলায় তার উদ্যোগের প্রশংসা করেন। বিশেষ করে বাংলাদেশে চাইল্ড ম্যারেজ রেসট্রেইন্ট অ্যাক্ট ১৯২৯-এর সংশোধনী অন্যান্য দেশকে অনুরূপ উদ্যোগ নিতে অনুপ্রাণিত করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয় তাদের চিঠিতে। মেয়েদের খতনা এবং বাল্য ও জোরপূর্বক বিয়েবিরোধী শীর্ষ সম্মেলন এটাই প্রথম। এর হোস্ট ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। কো-হোস্ট হিসেবে রয়েছে ইউনিসেফ এবং যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রণালয়। বুধবার ঢাকার উদ্দেশ্যে লন্ডন ছাড়ার আগেও রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি। এর মধ্যে বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসের সঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারও দেবেন তিনি। এদিনই সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় ঢাকার উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী লন্ডন ত্যাগ করবেন বলে জানা গেছে।

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email