শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্রয়োজন ইভটিজিংবিরোধী ব্যাপক সামাজিক সচেতনতা ও সামাজিক প্রতিরোধ

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, ‘নারী শিক্ষা বিস্তারে সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি ফলপ্রসূ করতে সমাজ থেকে ছাত্রী লাঞ্ছনা পুরোপুরি নির্মূল করতে হবে। কেবল আইনের মাধ্যমে এ ধরনের সামাজিক ব্যাধির প্রতিকার সম্ভব নয়। এজন্য প্রয়োজন ইভটিজিংবিরোধী ব্যাপক সামাজিক সচেতনতা ও সামাজিক প্রতিরোধ।’

সোমবার সচিবালয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ইভটিজিং প্রতিরোধে করণীয় নির্ধারণের বৈঠকে তিনি একথা বলেন।  শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সরকারের কার্যকর পদক্ষেপে ছাত্রীদের ওপর সহিংসতার ঘটনা অনেক কমে এসেছে দাবি করে মন্ত্রী বলেন, ‘তবে এখনো পত্রপত্রিকায় সন্ত্রাসীদের হাতে ছাত্রী লাঞ্চনার খবর আমাদের উদ্বিগ্ন করে। অভিভাবকরা মেয়েদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠিয়ে ভয়াবহ মানসিক দুশ্চিন্তায় থাকেন। অসহনীয় পরিস্থিতিতে অনেক ক্ষেত্রে মেয়েদের লেখাপড়া বন্ধ করে দেওয়ার খবরও পাওয়া যায়।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন,‘দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে এমনকি শহর এলাকাতেও স্কুল, কলেজগামী ছাত্রীদের ওপর ছাত্রী উত্ত্যক্তকারী সন্ত্রাসীদের সশস্ত্র হামলার খবর অভিভাবকদের বিচলিত করে।’

শিক্ষার্থী, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির সদস্যসহ সচেতন জনসাধারণ এক্ষেত্রে ভূমিকা রাখতে পারে বলেও জানান শিক্ষামন্ত্রী।

মাদারীপুরের নবগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী নিতু মণ্ডলের হত্যাকারীর বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, শিক্ষামন্ত্রী সোমবার মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সাথে টেলিফোনে কথা বলেন এবং নিতু মণ্ডলের হত্যাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার নির্দেশ দেন যাতে আর কেউ এ ধরণের দুষ্কর্মের সাহস না পায়।

বৈঠকে শিক্ষা সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এ এস মাহমুদ, অরুণা বিশ্বাস, চৌধুরী মুফাদ আহমদ, মোল্লা জালাল উদ্দিন, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. মাহাবুবুর রহমান এবং চলতি দায়িত্বে থাকা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক শামছুল হুদাসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Spread the love