শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফাইভ জি নিলামের প্রথম পর্বে তরঙ্গ কিনেছে চার মোবাইল অপারেটর

পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক ফাইভ জি’র নিলামে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকার তরঙ্গ (স্পেকট্রাম) কিনেছে চার মোবাইল অপারেটর।

বৃহস্পতিবার দুপুরে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে এ নিলাম অনুষ্ঠিত হয়। নিলাম পরিচালনা করেছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

বিটিআরসির বেতার তরঙ্গ নিলামের প্রথম পর্বে প্রায় দশ হাজার কোটি টাকার বেতার তরঙ্গ বিক্রি হয়েছে। প্রথম পর্বে গ্রামীণফোন ও রবি ২৬০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডে ৬০ মেগাহার্টজ করে ১২০ মেগাহার্টজ, ২৩০০ মেগাহার্টজে বাংলালিংক ৪০ মেগাহার্টজ এবং টেলিটক ৩০ মেগাহার্টজ পরিমাণ বেতার তরঙ্গ কিনেছে।

প্রথম দফায় ১ হাজার ৬৮০ কোটি টাকা দিয়ে ২৩০০ ব্যান্ডে ৩০ মেগাহার্টজ স্পেকট্রাম কিনে নেয় টেলিটক।

দ্বিতীয় দফায় ৩ হাজার ৩৬০ কোটি টাকা দিয়ে ২৬০০ ব্যান্ডে ৬০ মেগাহার্টজ স্পেকট্রাম কিনে নেয় রবি। এরপরই গ্রামীণফোন একই ব্যান্ডে একই মূল্যে ৬০ মেগাহার্টজ বেতার তরঙ্গ নেয়। এরপর ২৩০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডে ২ হাজার ২৪১ কোটি টাকায় বাংলালিংক ৪০ মেগাহার্টজ পরিমাণ বেতার তরঙ্গ নেয়।

বিটিআরসির অয়োজনে এ নিলামে টেলিটক, গ্রামীণফেন, রবি এবং বাংলালিংক অংশ নিচ্ছে। দ্বিতীয় পর্বে ২৩০০ ব্যান্ডে আরও ৩০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডের জন্যে নিলামে অংশ নিচ্ছে টেলিটক ও বাংলালিংক।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর শিকদার অতিথি হিসেবে উপস্থিত রয়েছেন।

‘রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি অকশন-২০২২’ শীর্ষক নিলামে মেগাহার্টজ তরঙ্গের প্রাথমিক মূল্য ১৫ বছরের জন্য ৬ মিলিয়ন ডলার ভিত্তি ধরা হয়েছে। এবারের নিলামের জন্য ২.৩, ২.৬ এবং ৩.৫ গিগাহার্টজ ব্যান্ড নির্ধারণ করা হবে। নিলাম হয়েছে ১৮টি ব্লকে। প্রতি ব্লকে ছিল ১০ মেগাহার্টজ করে তরঙ্গ।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১২ ডিসেম্বর দেশে প্রথমবারের মতো ফাইভ জি চালু হয়। রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক পরীক্ষামূলকভাবে এ নেটওয়ার্ক চালু করেছিল।