রবিবার ১৪ অগাস্ট ২০২২ ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পার্বতীপুরে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকে গণধোলাই

মনজুরুল আলম, ষ্টাফ রিপোর্টার, পার্বতীপুর থেকেঃ দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আক্তার হোসেন (৪৫) পুলিশ কনষ্টেবল পদে চাকুরী দেয়ার কথা বলে এক নারীর নিকট থেকে পৌনে ৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। চাকুরী বা টাকা ফেরত না দিয়ে উল্টো সে ঔ নারীর সাথে অনৈতিক সর্ম্পক গড়ে তোলায় নারীর স্বজনরা আকতার হোসেনকে জুতাপেটা করেছে। গতকাল বুধবার বিকেলে পার্বতীপুর শহরের নতুন বাজার শহীদ মিনার রোডে আকতার হোসেনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হাজী ইলেকট্রোনিক্স এ ঘটনা ঘটে। এ সময় উৎসুখ জনতার ভিড়ে শহীদ মিনার রোডে প্রায় এক ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। প্রায় ঘন্টাখানেক পর সন্ধ্যা ৬টার দিকে পার্বতীপুর মডেল থানার এসআই পলাশ চন্দ্রের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে আকতার হোসেনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

জানা গেছে, প্রায় ৬ মাস আগে পার্বতীপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আক্তার হোসেন হলদীবাড়ী গ্রামের এক নারীকে পুলিশ কনষ্টেবল পদে চাকুরী দেয়ার কথা বলে ৩ লাখ ৬৭ হাজার টাকা গ্রহন করে।

Parbatipur-1দীর্ঘদিনেও চাকুরীর কোন ব্যবস্থা না হওয়ায় পরিবার ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। চাকুরী বা টাকা ফেরত না দিয়ে উল্টো সে অনৈতিক সর্ম্পক গড়ে তোলার চেষ্টা চালায়। এ জন্য সে প্রায়ই চাকুরীর বিষয়ে কথা আছে বলে মোবাইল ফোনে তার সঙ্গে ঘনঘন যোগাযোগ করে ও দেখা করতে বলে। এ ঘটনা নিয়ে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতার অশালীন ফোনালাপের রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম পার্বতীপুর শহরের তরুণদের মাঝে ‘‘হটকেক’’ এর মত ছড়িয়ে পড়ে। এতে ঔ নারীর পরিবারের বিক্ষুব্ধ সদস্যরা বুধবার বিকালে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে টাকা দাবি করে এবং এলোপাতাড়ি চড়থাপ্পর ও জুতাপেটা করে।

নারীর পরিবার জানান, আকতার হোসেন তার মেয়ের পুলিশ কনষ্টেবল পদে চাকরি দিবে বলে প্রথমে সাড়ে ৩ লাখ নেয়। পরবর্তীতে সে আরও ২৫ হাজার টাকা দাবী করে। এর মধ্যে ১৭হাজার টাকা পরিশোধ করা হয়। পার্বতীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। রাত ৯টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশের মধ্যস্থতায় ঘটনাটির নিস্পত্তির চেষ্টা চলছিল।

 

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email