সোমবার ১৬ মে ২০২২ ২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বরেন্দ্র বহুমূখী উন্নয়ন কর্তৃপরে সেচ প্রকল্পের মাধ্যমে ফুলবাড়ীতে ঘটেছে বোরো চাষের বিপ্লব ॥

শেখ সাবীর আলী ফুলবাড়ী (দিনাজপুর)বরেন্দ্র বহুমূখী উন্নয়ন প্রকল্পের সেচ প্রকল্পের মাধ্যেমে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার বোরো চাষের বিপ্লব ঘটেছে। বর্তমানে মোট আবাদকৃত জমির ৯০ ভাগ জমিতেই হচ্ছে বোরো চাষ। এতে মোট খাদ্য উৎপাদনের সিংভাগ খাদ্য উৎপাদন হয় বোরো চাষের আওতায়।

উপজেলা বরেন্দ্র বহুমূখী উন্নয়ন প্রকল্প কর্মকর্তা সহকারী প্রকৌশলী আজমল হক ও বরেন্দ্র বহুমূখী কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে উপজেলার ২২৯টি গভীর নলকূপ রয়েছে। এর মধ্যে ১০৭টি বরেন্দ্র উন্নয়ন প্রকল্পের, বিএডিসি ১৭টি ও ব্যক্তি মালিকানাধীন রয়েছে ১০৫টি। এছাড়া স্বল্প গভীর বা গভীর সেচ পাম্প রয়েছে ৫হাজার ৫২৫টি। এছাড়া উপজেলার মোট আবাদযোগ্য জমির পরিমাণ ২১হাজার ২১৫ হেক্টর বা ৫২ হাজার ৪০০ একর তার মধ্যে সেচকৃত জমির পরিমান ১৮ হাজার ৮১০ হেক্টর বা ৪৬ হাজার ৪৬০একর। তার মধ্যে ররেন্দ্র উন্নয়ন প্রকল্পে আওতায় রয়েছে ৩হাজার ৯৮৯ হেক্টর বা ৯হাজার ৮৫২ একর। শুধু তাই নয় বরেন্দ্র চালিত সেচ প্রকল্পগুলেতে বিদুৎ লাইন স্থাপন করায় ঐ একই লাইনে ব্যক্তি মালিকানাধীন শত শত অগভীর সেচ পাম্প স্থাপন করা হয়েছে। যার সুবাদে মোট আবাদকৃত জমির ৯০ভাগ জমি এখন সেচের আওতায় এসেছে। যার ফলে মোট খাদ্য উৎপাদনের ৭০ ভাগ আসে এই রোরো চাষ থেকে।

উপজেলা বরেন্দ্র বহুমূখী উন্নয়ন প্রকল্প কর্মকর্তা সহকারী প্রকৌশলী আজমল হক আরও জানান উপজেলায় শুধু সেচ প্রকল্প নয় উপজেলার ৭টি প্রকল্পের অধীন প্রায় ১২শত পরিবারকে বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ করে আসছে। তিনি জানান ইতিমধ্যে উপজেলার উত্তর লীপুর, স্বরসতীপুর, রশিদপুর, নন্দলালপুর, জাফরপুর ও কাজিহাল প্রকল্পের মাধ্যেমে শুধু মাত্র বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের বিনিময়ে বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ করা হচ্ছে। এছাড়াও উপজেলার উত্তর রঘুনাথপুর ও সেনড়া গ্রামে দুটি প্রকল্পের উন্নয়ন কাজ চলছে । এটি নির্মাণ হলে আরও সাড়ে ৩শত পরিবার বিশুদ্ধ খাবার পানি পাবে।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email