শুক্রবার ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘বাংলাদেশের শাসন পরিস্থিতি ২০১৩ : গণতন্ত্র, দল এবং রাজনীতি’ শীর্ষক আলোচনা সভা

গণফোরামের সভাপতি ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল হোসেন, ‘শুধু নির্বাচন দিয়েই কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে না। প্রাতিষ্ঠানিক গণতন্ত্রের জন্য গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলো গড়ে তুলতে হবে। তাই অস্বাভাবিক অবস্থা থেকে স্বাভাবিক অবস্থায় যেতে একটি পথ বের করতে হবে।’

শনিবার মহাখালীর ব্র্যাক সেন্টারে ‘বাংলাদেশের শাসন পরিস্থিতি ২০১৩ : গণতন্ত্র, দল এবং রাজনীতি’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, ‘কেবল আওয়ামী লীগ-বিএনপির মধ্যে সংলাপ হলে চলবে না। সংলাপ হতে হবে ছোট-বড় সব দলের মধ্যে। তবে সংবিধানের মূলনীতি মেনেই সংলাপে বসা উচিৎ।’

সভায় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘৫ জানুযারি নির্বাচন না হলে দেশে ওয়ান ইলেভেনের পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারত। সরকারের দায়িত্ব হল এ ধরনের পরিস্থিতি থেকে দেশকে রক্ষা করা, মহাজোট সরকার সেটাই করেছে।’

অন্যদিকে আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘দলের ভেতর গণতন্ত্রের পাশাপাশি দেশে একটি প্রতিনিধিত্বমূলক সরকারও থাকতে হবে। কিন্তু বাংলাদেশে প্রতিনিধিত্বমূলক সরকার অনুপস্থিত। গণতন্ত্রের জন্য স্পেস দরকার। কিন্তু রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসে সে স্পেস আজ পাওয়া যাচ্ছে না।’

আলোচনা সভায় অংশ নেওয়া ঢাকা বিশ্ব্যবিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের  অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘আমাদের রাজনীতির ভাষা অনেক বদলে গেছে। রাজনীতিবিদরা এখন জনগণের ভাষায় কথা বলেন না।’

 

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব গভর্নেন্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (বিআইজিডি) গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশের এই অনুষ্ঠানে বিআইজিডির নির্বাহী পরিচালক সুলতান হাফিজ রহমান সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান, সরকারি সংস্থা, বিদেশি সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Spread the love