সোমবার ২২ এপ্রিল ২০২৪ ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ জঙ্গির দেশ না-প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষকে হত্যা করা সহ্য করা হবে না। বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদার বিরুদ্ধে খুনের মামলা হয়েছে। তাদের কোনো ক্ষমা নেই। এদেশের মাটিতেই তার বিচার হবে। জঙ্গিবাদ আমরা মেনে নেবো না। জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সকলকে রুখে দিতে হবে। খালেদা জিয়াকে শাস্তি পেতেই হবেই। জঙ্গি নেত্রীর বিচার হবেই হবে। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া অফিসের মধ্যে বসে মানুষ হত্যা করবেন। আমারা সহ্য করবো না।

 

শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৭ মার্চ উপলক্ষে দলীয় উদ্যোগে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এই আহবান জানান।

 

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে বেগম জিয়া আন্দোলনে সফল হতে পারবেন না। যারা জঙ্গি তৎপরতা করে দেশকে জঙ্গিবাদী রাষ্ট্র বানানোর ষড়যন্ত্র করছে, তাদের বিচার বাংলার মাটিতে হবে। আমরা এই জঙ্গিদের দমন করে বাংলাদেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করবোই। এই দেশের মানুষের রক্ত নিয়ে যারা খেলা করছে তাদের শাস্তি হবেই। এই জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের রক্ষা নাই। কারণ, বাংলাদেশ জঙ্গির দেশ না।’

 

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বেগম জিয়া আন্দোলনের নামে নিজেকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন। তিনি নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি করেন। নিরাপত্তা বাড়ালে বলেন অবরুদ্ধ। আবার পুলিশ সরিয়ে নিয়ে গেলে বলে নিরাপত্তার অভাব। তাহলে বলেন আমরা যাবোটা কোথায় ?’

 

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জনসভায় আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মোহাম্মদ নাসিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজ, সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা আবু কাওছার, শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতি ফজলুল হক মন্টু, ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম।

Spread the love