রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ১লা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিএনপির অসহযোগ আন্দোলনের হুমকি

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আ্হমেদ বলেছেন, অবৈধ, অনির্বাচিত, দখলবাজ আওয়ামী সরকার রাষ্ট্রশক্তির চুড়ান্ত অপব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশ নামের এ জনপদকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। অবৈধ সরকারের এহেন শ্বেতসন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদমূখর জনগণ অচিরেই আইন অমান্য ও অসহযোগ আন্দোলন শুরু করতে বাধ্য হবে।

আজ শুক্রবার অজ্ঞাত স্থান থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ হুমকি দেন।

 

তিনি আরও বলেন, ইদানিং আওয়ামী নেতা-মন্ত্রীরা প্রকাশ্য জনসমাবেশে আন্দোলনকারীদের এনকাউন্টার এবং ক্রসফায়ারে হত্যা করার প্রকাশ্য ঘোষনা দিয়ে যাচ্ছেন। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর বড় কর্তারাও প্রকাশ্যে সভা-সমিতি করে ক্রসফায়ারে হত্যার কৃতিত্ব দাবী করে বেড়াচ্ছেন। এসমস্ত বিকৃত মস্তিস্কের নেতা-মন্ত্রী ও পুলিশ কর্মকর্তাদের ভবিষ্যত পরিণতি গণকারফিউ এবং গণপিটুনিতে নির্ধারিত হওয়ার সমূহ সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দেয়া যায়না। এ ধরণের মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রকাশ্য দাম্ভিক ঘোষণা আগামীতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে বিচারের আওতায় আনা হবে।

সালাহ উদ্দিন আ্হমেদ বলেন, কয়েকদিন আগে পুলিশ ক্রসফায়ারে হত্যা করে ছাত্রদল নেতা নুরুজ্জামান জনিকে। তাকে হত্যা করেও ক্ষান্ত হয়নি, এবার তার পিতা-মাতা-অন্ত:স্বত্তা স্ত্রী ও শ্বাশুড়ীকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতার করা হয়েছে ছাত্রদল নেত্রী নিশিতাকে। তাদের অপরাধ তারা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাত করতে এসেছিলেন। ইতোপূর্বে গ্রেফতার করা হয়েছে গাজীপুরের সিটি মেয়র ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অধ্যাপক আবদুল মান্নানকে। আমরা এ জাতীয় বেআইনী ও ঘৃন্য গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ এবং তাদের নি:শর্ত মুক্তি দাবী করছি।

বিএনপির এ মুখপাত্র বলেন, সরকার হত্যা-নির্যাতনের উন্মত্ততায় মূলত: জনগণকে আতঙ্কিত করে তুলে রাষ্ট্রক্ষমতা দীর্ঘায়িত করতে চায়। বিরোধী দলের নেতা কর্মীসহ নির্বিচারে মানুষ হত্যা, গুম, অপহরণ ও গণগ্রেফতার করে মূলত: সরকার নিজের নিরাপদ অবতরণের পথকেই ক্রমশ: সংকুচিত করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীকে আহবান জানাচ্ছি- এখনও সময় আছে, ফ্যাসিবাদী একদলীয় রাষ্ট্রব্যবস্থা কায়েমের উন্মাদনা ও ব্যর্থ প্রচেষ্টা থেকে সরে এসে গণদাবী মেনে নিয়ে দ্রুত পদত্যাগ করুন এবং দেশে প্রকৃত গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা পূণ:প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করুন। অনথায় গণআন্দোলনে পতনের পর গণরোষে নিপতিত হয়ে পরিণাম শুভ হবেনা। ইতিহাস তাই সাক্ষ্য দেয় বলেও মন্তব্য করেন সালাহ উদ্দিন।

Spread the love