বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিএনপি-জামায়াতের কাজই হলো মানুষ হত্যা করা : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিএনপি-জামায়াতের কাজই হলো মানুষ হত্যা করা। তারা ক্ষমতায় এসে সাধারণ মানুষকে তো মেরেছেই, গ্রেনেড মেরে আমাদের সংসদ সদস্যকেও হত্যা করেছে। এখন ক্ষমতায় না থাকলেও তাদের সে হত্যাযজ্ঞ চলছে। পেট্রোল-ককটেল মেরে তারা মানুষ পুড়িয়ে মারছে।

রবিবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং শিশুকিশোরদের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসলামের নামে জামায়াত শিবির সারা দেশে গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে। ভূমি অফিসে আগুন দিয়ে কাগজপত্র পুড়িয়ে ফেলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, উপজেলায়, জেলায় ভূমি অফিসগুলোতেও তারা আগুন দিচ্ছে। এর অর্থটা কী? দলিলপত্র পুড়িয়ে ফেলার কী রহস্য থাকতে পারে? আমি আমাদের গোয়েন্দা সংস্থাকে বলেছি যে করেই হোক যারা ভূমি অফিসে আগুন দিয়ে জরুরি দলিল পোড়াচ্ছে তাদেরকে খুঁজে বের করতে হবে এবং তাদের সকল জমি বাজেয়াপ্ত করা হবে।
আওয়ামী লীগ যতবার ক্ষমতায় এসেছে ইসলামের প্রচার ও প্রসারে কাজ করেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ক্ষমতায় থাকাকালে আইন করে মদ-জুয়া নিষিদ্ধ করেছিলেন, ঈদে ছুটি চালু করেছিলেন, মাদরাসা বোর্ড প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, রেডিও এবং টিভি অনুষ্ঠান শুরুর আগে পবিত্র কোরআন পাঠ চালু করেছিলেন। তিনি স্মরণ করেন, জাতিসংঘ সদস্য পদের পাশাপাশি ইসলামী দেশগুলোর জোট ওআইসিরও সদস্য পদও বঙ্গবন্ধুর সময় পাওয়া গেছে।
বিএনপি-জামায়াত ইসলামের নামে নাশকতা ও মানুষ হত্যা চালিয়ে যাচ্ছে অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ যখন সারা বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হয়ে উঠছে তখনই আগুন দিয়ে সম্পূর্ণ জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে বিএনপি জামায়াত। এটা দুর্ভাগ্যজনক। তারা বিশ্ব ইজতেমা ও ঈদ-ই-মিলাদুন্নবীর সময়ও হরতাল-অবরোধ করে মানুষ হত্যা করেছে। এরা কীভাবে ইসলামে বিশ্বাস করে? এ দেশে জঙ্গিবাদের কোনো স্থান হবে না। অপরাধীদের অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।

Spread the love