মঙ্গলবার ৪ অক্টোবর ২০২২ ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিদ্যালয়ের আবাসন সংকট খোলা মাঠে পাঠ নিচ্ছে শিক্ষার্থীরা

Sonkaবীরগঞ্জ প্রতিদিন: বীরগঞ্জে সমস্যায় জর্জরিত সনকা দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের আবাসন ও আসবাবপত্রের অভাবে খোলা মাঠে নিচে পাঠ নিচ্ছে শিক্ষার্থীরা।

জানা গেছে, ১৯৬৮ইং সালের শুরুতে শিক্ষানুরাগী ব্যাক্তিবর্গের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ২ দশমিক ৬৪ একর জমিতে কাচা ঘর তৈরী করে সনকা দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যায়ের  শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করা হয় । অতঃপর বিদ্যালয়টি একাডেমিক স্বীকৃতি শিক্ষক কর্মচারী প্রতিমাসে সরকারী ভাতা প্রদান করা হয়। ১৯৮৫ইং সালে এমপিও ভূক্ত করা হয়।

বিদ্যালয়টিতে বর্তমানে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ক.শাখায় ১১৬ জন, খ.শাখায় ৪৯জন ৭মশ্রেণীতে ক.শাখায় ৭৪ জন, খ.শাখায় ৪৯জন, ৮মশ্রেণীতে ক.শাখায় ১০৬ জন, খ.শাখায় ৭১জন, ৯ম শ্রেণীতে বিজ্ঞান ৪২ জন, মানবিক ৪৯জন, ১০ম শ্রেণীতে বিজ্ঞান ৪৮জন, মানবিক ৬৬জন, এবং এসএসসি পরীক্ষার্থী ৮৫জন সহসর্বমোট ৭৫৫জন শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত। সরকারী বিধি মোতাবেক ২০টি শ্রেণীকক্ষ প্রয়োজন। ২০টি শ্রেণীকক্ষ স্থলে ৫টি শ্রেণীকক্ষ বিশিষ্ঠ জরাজীর্ণ একটি কাঁচা ঘর, ৩টি শ্রেণীকক্ষ  বিশিষ্ঠ একটি আধাপাকা ঘর ও ৩টি শ্রেণীকক্ষ  বিশিষ্ট একটি পাকা সহ ৯টি শ্রেণীকক্ষ রয়েছে। বর্তমানে ১১টি শ্রেণীকক্ষ সংকট রয়েছে। ৭৫৫জন শিক্ষার্থীর বিপরিতে ১৮৮ জোড়া বেঞ্চ প্রয়োজন কিন্তু বেঞ্চ রয়েছে মাত্র ১শত জোড়া।  এখন সংকট ৮৮জোড়া বেঞ্চ। প্রধান শিক্ষক মোঃ ওবাইদুল ইসলাম জানান বেঞ্চ সংকটের কারনে প্রতিটি বেঞ্চ ৪জন শিক্ষার্থী স্থলে ৬/৭জন শিক্ষার্থী গাদাগাদি করে অনেকে দাড়িয়ে পাঠ গ্রহণ করছে শিক্ষার্থী’রা। শিক্ষকের নির্ধারিত ১১টি পদে শিক্ষক/শিক্ষিকা রয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ প্রদত্ত ৪জন খন্ডকালিন শিক্ষক সহ ১৫জন শিক্ষক দিয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠ পরিচালনা করতে হচ্ছে। শ্রেণীকক্ষ ও বেঞ্চ অভাবে ৯ম ও ১০ম শ্রেণীর বিজ্ঞান বিভাগ ও মানবিক বিভাগ বিভক্ত পাঠ দানের সময় এবং ধর্ম শিক্ষা পাঠদানের সময় শিক্ষার্থীদের খোলা আকাশের নিচে পাঠ দিতে হচ্ছে। জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপালের কাছে সরকারী অনুদানের মাধ্যমে একটি একাডেমিক ভবনের জন্য আবেদন করা হয়েছে। তিনি সরেজমিনে তদন্ত করে সমস্যাটি উপলব্ধিতে নিয়ে একাডেমিক ভবন নির্মানের আশ্বাস দিয়েছেন।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email