বুধবার ৪ অগাস্ট ২০২১ ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিভীষিকাময় দামাইক্ষেত্র গণহত্যা দিবস

জীবন ছন্দের চলার পথে শোকের প্রতীক স্বস্তিকা চিহ্ন হয়ে প্রজ্জ্বলিত হয়ে আছে দামাইক্ষেত্র গ্রামের মানুষের আবেগ আপ্লূত আপ্লব নষ্টালজিক। ১৯৭১সালের সেই বিভীষিকাময় ০৮জুলাই পালিত হলো দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার “দামাইক্ষেত্র গণহত্যা দিবস”।আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম একটি মাত্রা হচ্ছে গণহত্যা যার স্বীকার হয়েছিলেন ত্রিশ লক্ষ নিরীহ মানুষ। ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি -এর পরতে পরতে রয়েছে অজস্র মানুষের কান্না -বেদনার কথা।দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার দামাইক্ষেত্র গ্রামটিতে ও ১৯৭১সালে সংঘটিত হয় ভয়াবহ গণহত্যা -শহীদ হোন ১২জন নিরীহ মানুষ। এই গণহত্যা শুরু হয় ১৯৭১সালের ০৮জুলাই, চলে ০২আগস্ট পর্যন্ত। স্থানীয় রাজাকারদের সহযোগিতায় গ্রামটিতে দফায় দফায় হত্যাযজ্ঞ চালায় পাকিস্তানি সেনারা। এই গনহত্যা নিয়ে “গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্র,খুলনার ” গবেষক বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রভাষক ইয়াসমিন সুলতানা ইতিমধ্যে একটি গবেষণা কাজ সম্পন্ন করেছেন।তার গবেষণায় উঠে আসে সে সময়ে দামাইক্ষেত্রগ্রামে বসবাসরত নিরীহ মানুষগুলোর উপর ভয়াবহ নির্যাতনের করুন চিত্র। গ্রামের অধিকাংশ পরিবারই ছিল অবস্থাপন্ন হিন্দু সম্প্রদায়ের। ভারতের শরনার্থী শিবিরে যাওয়ার কোন উপায় না পেয়ে এক প্রকার বাধ্য হয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তারা এখানে অবস্থান করেন। ফলে দফায় দফায় আক্রমণের স্বীকার হোন। হত্যা, নারী নির্যাতন -কোন কিছুই বাদ যায়নি।ধনাঢ্য নসিপ্রসাদ,ভুবনমোহন মতো ব্যাক্তিরা-যারা পরিবারের কর্তা ছিলেন, তারা হত্যা কান্ডের স্বীকার হওয়ায় তাদের পরিবারগুলো আজ তচনচ হয়ে গেছে। ২৫বছরের যুবক যীতেন রায়কে খান সেনারা সৈয়দপুর ক্যান্টনমেন্টে ধরে নিয়ে যায় -যার প্রতীক্ষায় দিন গুণতে গুনতে প্রিয়তমা স্ত্রীও অবশেষে মৃত্যু বরণ করে আর যীতেনের সেদিনের ৫বছরের শিশু পুত্র সুরেশ এত বছর পরেও তার বাবার ফিরে আসার প্রতীক্ষা করে। এই শহীদদের স্মৃতি সংরক্ষণের জন্য ১৯৭১গনহত্যা -নির্যাতন-আর্কাইভ ও যাদুঘর ট্রাস্ট ২০১৯সালের ২৪ডিসেম্বর একটি স্মৃতি ফলক নির্মাণ করে-যেটি উদবোধন করেন ট্রাস্টের সভাপতি প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ প্রফেসর ডঃমুনতাসির মামুন। পরবর্তীকালে দিনাজপুর-০১এর মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য জনাব মনোরঞ্জন শীল গোপাল মহোদয় এর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সৌজন্যে ৩৫লক্ষ টাকা ব্যয়ে একটি স্মৃতি সৌধ নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। “দামাইক্ষেত্র গগণহত্যা ” দিবসটি কোভিড-১৯অতিমারির কারণে সীমিত পরিসরে পালন করা হয়।প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকেন দিনাজপুর ০১এর মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য জনাব মনোরঞ্জন শীল গোপাল, বীরগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী অফিসার জনাব আব্দুল কাদের,বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব আব্দুল মতিন প্রধান, উপজেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জনাব কালীপদ রায়,দামাইক্ষেত্র গণহত্যার গবেষক জনাব ইয়াসমিন সুলতানা, মুক্তি যুদ্ধের আরেক গবেষক জনাব প্রশান্ত কুমার সেন সহ শহীদ পরিবারের সদস্যরা। প্রথমে শহীদদের স্মৃতি ফলক এ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয় এবং পরে শহীদ পরিবারের মাঝে প্রধান মন্ত্রীর ত্রাণ বিতরণ করেন জাতীয় সংসদ সদস্য জনাব মনোরঞ্জন শীল গোপাল।

লেখক-প্রভাষক প্রশান্ত কুমার সেন।

গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষক।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email