বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে গেইলের ডাবল সেঞ্চুরির

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হার্ড হিটিং ওপেনার ক্রিস গেইলের ডাবল সেঞ্চুরি।  জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১ম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপে ডাবল সেঞ্চুরির অনবদ্য রেকর্ড গড়েছেন গেইল। এটি ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাওেস ৯ম ডাবল সেঞ্চুরি। এদিকে একই ম্যাচে আরেকটি রেকর্ড গড়েছেন তিনি। মারলন স্যামুয়েলসকে (১৩৩ অপরাজিত) সাথে নিয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে নতুন সর্বোচ্চ পার্টনারশীপ গড়ে তুলেছেন। এই জুটির ৩৭১ রান এখন ওয়ানডে ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের জুটির রেকর্ড। এর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৯৯৯ সালে হায়দ্রাবাদে ভারতীয় রাহুল দ্রাবিড় এবং টেন্ডুলকারের করা ৩৩১ রানের জুটি ছিল সর্বোচ্চ।
আজ মঙ্গলবার জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে নিজেদের ইনিংসের শেষ বলে আউট হবার আগ পর্যন্ত তার সংগ্রহ ছিল ক্যারিয়ার সেরা ২১৫ রান। এটা তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১ম ডাবল সেঞ্চুরি। ২২৬ ওয়ানডেতে প্রথমবারের মত ডাবল সেঞ্চুরি অর্জন করা গেইল শেষ বলে আউট হবার আগে ১৩৮ বলে ৯টি বাউন্ডারি ও ১৬টি ওভার বাউন্ডারির সহায়তায় দ্বিশতক রান পূর্ণ করেন। ৩৫ বছর বয়সী বাঁহাতি এ অল রাউন্ডারের ২১৫ রানই এখন বিশ্বকাপে কোন ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রান।
এর আগে রাওয়ালপিন্ডিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে ১৯৯৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান গ্যারি কারস্টেনের করা ১৮৮ রানই ছিল সর্বোচ্চ। পুরো ইনিংসে গেইল ১৪৭ বল খেলে ১০টি বাউন্ডারি ও ১৬টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন। মারলন স্যামুয়েলসকে সাথে নিয়ে ২য় উইকেটে দূর্দান্ত ইনিংস খেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দলীয় রান ২ উইকেটে ৩৭২ রানে নিয়ে গেছেন। গেইল যে ১৬টি ওভার বাউন্ডারি মেরেছেন সেটা এখন ওয়ানডে ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স এবং ভারতের রোহিত শর্মার সাথে একত্রে সর্বোচ্চ।
গেইলের এই ইনিংস ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে ৯ম ডাবল সেঞ্চুরি। এর আগে করা সবকটি ইনিংসই ছিল কোন ভারতীয় ব্যাটসম্যানের। এর মধ্যে দুটি রোহিত শর্মার এবং একটি করে রয়েছে শচীন টেন্ডুলকার এবং ভিরেন্দ্র শেবাগের। প্রসঙ্গত আজ মঙ্গলবার এবারের বিশ্বকাপে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে ২ উইকেট হারিয়ে ৩৭২ রান করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email