মঙ্গলবার ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ২৪শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে কলেজ ছাত্রকে জুতা পেটা করার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা

Bclমোঃ মীর কাসেম লালু,বীরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বীরগঞ্জে প্রাইভেট ছাত্রকে জুতা পেটা করার প্রতিবাদে  মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা

গত ৭ জুলাই বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক রোকনুজ্জামান রোকন কলেজের একটি কক্ষে আনুমানিক ৭০জন শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট পড়ানোর সময় কলেজ ছাত্রাবাস থেকে বানিজ্যিক শাখার দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী উপজেলার ভেলপুকুর গ্রামের আব্দুস সালামের পুত্র অসুস্থ্য আল আমিন ইসলাম (১৯) কে ডেকে এনে প্রইভেটে না আসার কারনে জুতাপেটা করেন। জুতাপেটা খেয়ে অসুস্থ আল আমিন মাথা ঘুরে পড়ে গেলে ছাত্ররা তাকে তুলে কলেজ ছাত্রাবাসে পৌছে দেয়। এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে সকল ছাত্ররা উত্তেজিত হয়ে দোষী প্রভাষক রোকনুজ্জামানের বিচারের দাবীতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিলে মিছিলে কলেজ ক্যম্পাস উত্তাল হলে অধ্যক্ষ খয়রুল ইসলাম চেম্বার থেকে বেরিয়ে মিছিলে বাধা দেয় ও ছাত্রদের মারবে বলে শাসায় এবং সকলকে লাল টিসির হুমকি প্রদশর্ন করলে শিক্ষার্থীরা আরো উত্তেজিত হয়ে অধ্যক্ষর কার্যালয় অবরোধ করে। সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যমত্ম অবরোধ করে রাখে। সংবাদপেয়ে কলেজে গিয়ে অধ্যক্ষের সাথ সাক্ষাত করা হলে তিনি জানান শতাধিক শিক্ষার্থী স্বাক্ষরিত অভিযোগ পেয়েছি। সকল শিক্ষকের সাথে পরামর্শ করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ৫দিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও কোন বিচার না পেয়ে আজ ছাত্ররা রাসত্মায় নেমে আসে। সকাল ১১টা থেকে ১টা পযমত্ম দিনাজপুর পঞ্চগড় মহাসড়কের পুরাতন শহীদ মিনারে মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করে । ছাত্রদের প্রতিবাদ সভায় একাত্ততা ঘোষনা করে বক্তব্যদেয় নিজপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের সাবেক জিবি সদস্য আব্দুল্লা আল কাফি, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক প্রভাষক রবিকুল ইসলাম, বীরগঞ্জ প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ আবেদ আলী, সাধারন সম্পাদক শাহীনুর ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নুরিয়াস সাইদ, জাতীয় পাটির প্রবীণ নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক মমিনুল ইসলাম স্বপন, যুগ্ন-আহবায়ক মোঃ বাদল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবয়ক সাজেদুর রহমান অনতু, সাবেক ছাত্র নেতা ফারুক আহম্মেদ, বাংলা ৩য় বর্ষের ছাত্র আনোয়ার হোসেন প্রমুখ । বক্তাগণ অবিলম্বে দোষি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং অধক্ষের পদত্যাগের দাবি জানিয়ে বলেন বাংলার ইতিহাসে প্রমান, ছাত্র নির্যাতন কারি সব সময় আসত্মাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে । বক্তাগণ মাননীয় সংসদ সদস্য মনোরজ্ঞন শীল গোপাল সহ প্রসাশনের হস্তক্ষেপ দাবী করেছেন ।