শুক্রবার ৯ জুন ২০২৩ ২৬শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় সন্ত্রাসী হামলা। আহত ৪ জন হাসপাতালে।

এন.আই.মিলন বীরগঞ্জ থেকেঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে কু-প্রস্তাবের বিচার চাওয়ায় সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত ৪, মামলা দায়েরের প্রস্ত্ততি চলছে।

উপজেলার সাতোর ইউনিয়নের চৌপুকুরিয়া গ্রামের বটতলী বাজার সংলগ্ন প্রভাবশালী দলিল উদ্দিন ওরফে দুদ মিয়ার পুত্র মানিক দীর্ঘদিন ধরে প্রতিবেশী মৃত নুরল ইসলামের বিবাহিত কন্যা শাহনাজ পারভীনকে পথে ঘাটে ও বাড়িতে গিয়েও উত্যক্ত করে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। শাহনাজের মা এবং ভাই অভিযুক্ত মানিকের অভিভাবককে বিষয়টি অবহিত করে এবং সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের নিকট বিচার দেয়। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে গত ২২ জুলাই সকাল ৬ টার দিকে মানিকের ভাই মিন্টু, স্ত্রী জেসমিন, পুত্র রাবিব সহ বেশকয়েকজন শাহানাজদের বাড়ীতে হামলা চালিয়ে শাহনাজ, ভাই সালাম, ফারুক, মা জাহানারা বেগমকে মারপিট করেন এবং বাড়ীঘর ভাংচুর করে তাদেরকে অবরুদ্ধ করে রাখে।

শাহানাজের দুলাভাই শাহাআলাম সংবাদ পেয়ে ঐ বাড়িতে উপস্থিত হয়ে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় আহতদের উদ্ধার করে বীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপে­ক্সে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করে। কর্তব্যরত ডাঃ ফারুককে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দিলেও বাকি ৩ জনের অবস্থা আশংঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের হাসপাতালে ভর্তি রাখেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শাহানাজ জানায়, গত ৩/৪ বছর পূর্বে মানিক বিভিন্ন মাধ্যমে আমাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে আমি রাজি না হওয়ায় তখন থেকে সে আমার ক্ষতি করার অপচেষ্টায় লিপ্ত থাকে। তার অত্যাচারে আমার অভিভাবকেরা অন্যত্র আমাকে বিয়ে দেয়। তখন থেকেই সে আমাকে বিভিন্নভাবে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তার প্রস্তাবে আমি রাজি না হলে সে আমার ক্ষতি করবে বলেও হুমকি দেয়। বাধ্য হয়ে আমি ঘটনাটি আমার স্বামীসহ মা ও ভাইদের নিকট জানালে তারা মানিকের পিতার নিকট বিচার দেয়।এলাকাবাসী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে লম্পট মানিকের আইনগত বিচার কামনা করেন।

অভিযুক্ত মানিক পলাতক থাকায় চেষ্টা করেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।