শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে গ্রামবাসির হাতে আটক পুলিশ সদস্য পালিয়েছে

বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ বীরগঞ্জে গত শনিবার ৫ম বিয়ে করতে এসে গ্রামবাসি আটক এক পুলিশ সদস্য পালিয়েছে। উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের বলরামপুর গ্রামের নুরুজ্জামানের কন্যা আয়শা খাতুন (২০)কে নীলফামারী জেলা সদর রামকলা গ্রামের আকবর আলীর পুত্র (পুলিশ কনেষ্টবলনং-১৯৮০৩) মোসলেম উদ্দিন (৩২) গত ১৩/মার্চ সাড়ে ৩ ভরি স্বর্ণলংকার দিয়ে আনুষ্ঠানিক বিয়ে করে। বিয়ের পর নববধুকে সঙ্গে নিয়ে যায় ও গত বৃহস্পতিবার স্বর্ণলংকার ছাড়াই বলরামপুর গ্রামে শশুর বাড়িতে বেড়াতে আসে। সংবাদ পেয়ে ৪র্থ স্ত্রী নেত্রকনা জেলার মদন উপজেলার দেউসপিলা গ্রামের বীরমুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলামের কন্যা বিথী আক্তার (২৫) পুলিশ কনেষ্টবল (নং-১৯৮০৩) মোসলেম উদ্দিন (৩২) কে তার স্বামী বলে দাবী করে। বিথী আক্তার বলরামপুর গ্রামবাসির কাছে অভিযোগ করে জানান তার ৪র্থনং-স্ত্রী সে তার স্বামীকে ফিরে পেতে চায়। তার স্ত্রী ১.বুলবুলি ২.শিউলী ৩.জুলেখা (২টি কন্যা সমত্মান) ৪.বিথী আক্তার ৫. বলরামপুরের আয়শা। প্রতারনার বিষয়টি আমলে নিয়ে বিথী আক্তারের কাছে প্রমান চায় বলরামপুর গ্রামবাসি, প্রতারনা মূলক ৫ম বিয়ে করার অপরাধে মোসলেমকে আটক করেছে। বিথী ও মোসলেমের বিয়ের কাগজপত্র নিয়ে বিথী আক্তারের বাবা-মা পথে আছেন জানতে পেরে গত শনিবার দিবাগত রাতে ৫ম স্ত্রী আয়শাকে নিয়ে পালিয়ে গেছে। গ্রামবাসি আব্দুর রহিম জানায় আয়শার পরিবারকে ফিরিয়ে আনার জন্য চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে।