বৃহস্পতিবার ১১ অগাস্ট ২০২২ ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে পাষন্ড স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রীর মৃত্যু

BP-012বীরগঞ্জ প্রতিদিন: দিনাজপুরের বীরগঞ্জে স্বামীর পাববিক নির্যাতনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্ত্রীর মৃত্যু।

জানায় যায়, বীরগঞ্জ উপজেলার নিজপাড়া গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে মোঃ ইলিয়াস আলীর সাথে ২০০৯ সালে কাহারোল উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের কলেজ পাড়ার মোঃ নজরুল ইসলামের কন্যা ময়না খাতুনের বিয়ে হয়। বিবাহিত জীবনের এক বছর পর ময়না খাতুন একটি কন্যা জন্ম দেন। সন্তানটির বয়স এখন প্রায় ৪ বৎসর। কিন্তু যৌতুক লোভী স্বামী ইলিয়াস আলী তার স্ত্রী ময়নাকে তার বাবার কাছ থেকে ১ লাখ টাকা যৌতুক বাবদ আনার জন্য চাপ প্রয়োগ করে । ময়না অস্বীকৃতি জানানলে প্রায়ই মারপিঠ করে। ময়না খাতুন তার বাবার নিকট হতে যৌতুক বাবদ ১ লাখ টাকা নিয়ে না আসার কারণে যৌতুক লোভ পাষন্ড স্বামী ইলিয়াস আলী সহ পরিবারের লোকজন  গত বছরের ১৭ আগষ্ট তারিখে রাতে মারপিট করে । সংবাদ পেয়ে পরদিন সকালে  ময়নার বাবা পরের দিন খবর পেয়ে ইলিয়াসের বাড়িতে গিয়ে মুমুর্ষ অবস্থায় কাহারোলে এনে উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। কিন্তু ময়নার অবস্থা দিন দিন অবনতি হওয়ার কারণে কাহারোল উপজেলা হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। দিনাজপুরে চিকিৎসার ফলপ্রসু না হওয়ার কারণে ঢাকার বঙ্গ বন্ধু শেখ মজিবুর রহমান মেডিকেল কলেজে চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়া হয়। তার পরেও ময়নার অবস্থা আরও অবনতির দিকে যাওয়ার ফলে ময়নার বাবা নজরুল ইসলাম তার নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন। কিন্তু হায় ! এত চিকিৎসা করার পরেও যৌতুক লোভী পাষন্ড স্বামী ইলিয়াসের আঘাত থেকে রেহাই পেলেন না ময়না। গত ২৮ জানুয়ারী মঙ্গলবার ১ টি ৪ বৎসর ও ১ টি ৪০ দিনের শিশু কন্যা সন্তান রেখে ময়না খাতুন রাত আনুমানিক ১ টার দিকে মারা যান। ময়নাকে নির্যাতন করার অপরাধে বীরগঞ্জ থানায় ময়নার বাবা মোঃ নজরুল ইসলাম ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং- ০৩,তাং- ০৬/০১/২০১৪। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কাহারোল থানায় মামলা দায়ের এর প্রস্ত্ততি চলছে বলে জানা যায়।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email