বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে ব্যাপক সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে ভোট গ্রহণ শেষ।

Birganj-Picবীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ বীরগঞ্জের গত রবিবার প্রতিরোধ, ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ, গুলি বর্ষন ও ব্যাপক সংঘর্ষ মধ্য দিয়ে দশম জাতীয় সংসদের ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে।সরকারী ভবে স্থগিত ভোট কেন্দ্রে সংখ্যা ৩০টি এবং আহত ৬ জনের কথা জানালেও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে দুপুর ১২টার মধ্যে ৬৮টি ভোট কেন্দ্র হামলার স্বীকারের কারণে হয়ে ভোট গ্রহণ বন্ধ হয়ে যায়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ব্যালট পেপার সহ নির্বাচনী সরঞ্জামে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। আহত হয়েছে অর্ধ শতাধিক। তবে নির্বাচন কন্টোল রুম থেকে জানানো হয়েছে অনেক ভোট সেন্টারের প্রিজাইডিং অফিসার আত্মরক্ষা করে নিরাপদ স্থানে আছেন। তাদের রিপোর্ট পাওয়া গেলে এর সংখ্যা বাড়তে পারে।

দশম জাতীয় সংসদের দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল) আসনের নির্বাচন ১৮দলীয় জোটের ব্যাপক প্রতিরোধের মুখে পড়ে। রাতে ককটেল বিস্ফোরণ ও ভোট কেন্দ্রের অগ্নিসংযোগ এবং পথে পথে গাছ কেটে ব্যাপক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে ১৮দলের নেতাকর্মীরা। আতংকে সকাল থেকেই বেশির ভাগ ভোট কেন্দ্রগুলিতে ভোটার শূন্য দেখা গেছে। শুরুতেই বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে  ১৮দলের প্রবল প্রতিরোধে মুখে পড়ে আইন-শৃঙখলা বাহিনী। ১২টার মধ্যে ১৮দলের নিয়ন্ত্রয়ে চলে যায় উপজেলার বেশির ভাগ ভোট কেন্দ্র। ব্যাপক ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ, গুলি বর্ষণ ও সংঘর্ষ চলে। এতে আহত হয় পুলিশ, শিক্ষক সহ অর্ধশতাধিক। বীরগঞ্জ উপজেলায় দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সহকারী রিটানিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবু জাফরের নেতৃত্বে বীরগঞ্জ  পৌর সভার ৯ টি এবং ১১টি ইউনিয়নের ৯৯টি ওয়ার্ডের ১লক্ষ ১ হাজার ৫১৬ জন পুরুষ ১ লক্ষ ৮০৬ জন মহিলা ভোটারের বিপরীতে ৮০টি কেন্দ্রে ও ৪১৮টি বুথে সকাল ৮টায় শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট গ্রহণে লক্ষ্যে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। দুপুর ১২টা পর্যন্ত শতকরা ১৪ হতে ১৫ ভাগ ভোট গ্রহনের পর ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা বেশীর ভাগ ভোট কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে ভোট গ্রহণ কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। ভোট কেন্দ্রের ভোট বাক্স, ব্যালট পেপার ও অন্যান্য মালামাল ছিনিয়ে নিয়ে জ্বালিয়ে দিয়েছে। বাকী কিছু ভোট কেন্দ্র নিরাপত্তা জনিত কারণে ভোট গ্রহণ বন্ধ করে দিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসে নিয়ে আসা হয়।

নির্ধারিত সময়ের পূর্বে ভোট বন্ধ করে দেওয়া ভোট কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে সহকারী রিটানিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবু জাফর জানান, আরপিও ২৫ ধারা অনুযায়ী এব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণের এখতিয়ার প্রিজাইডিং অফিসারের। এ বিষয়ে তিনিই সিদ্ধান্ত দিবেন।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email