শনিবার ২৫ জুন ২০২২ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে ব্র্যাক কর্মকতাকে বাসা থেকে তুলে নেওয়ার চেষ্টা

মোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জ, (দিনাজপুর) থেকেঃ বীরগঞ্জে গত রবিবার ব্র্যাক কর্মকর্তা নুরুজ্জামানকে বাসা থেকে তুলে নেওয়ার চেষ্টা ব্যার্থ হওয়ায় পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা।

বীরগঞ্জ রূপালী এ্যাগ্রো লিমিটেডের প্রোপাইটার ও  ব্র্যাক (সিনিয়র সিটস্ এস্কপার্ট) কর্মকর্তা নুরুজ্জামানের স্ত্রী রূপালী বেগম জানান, সম্প্রতি আমার স্বামী জলঢাকায় বদলী হয়েছে। স্বপরিবারে সেখানে যাওয়ার প্রস্ত্ততিকালে পৌর কাউন্সিলর আব্দুল বারিকের নেতৃত্ব প্রভাষক শাহাবুদ্দীন, এনামূল, নুর আলম ও মিজানুরসহ একদল সনত্রসী নিয়ে আমাদের ভাড়া বাসায় (সাবেক উপাদাক্ষ আলহাজ্ব সোলায়মান মিয়ার দ্বিতৃয় তলায়) এসে ৮লক্ষ টাকা দাবি করে। আমি টাকা দিতে অপারগতা জানালে আমার স্বামী ব্র্যাক কর্মকর্তা নুরুজ্জামানকে মারপিট ও চেংদোলা করে বাসা থেকে তুলে নেওয়ার চেষ্টা চালায়। এ সময় আমি, আমার মেয়ে তাবাসসুম মারিয়া (১৫), ছেলে নুর আহম্মেদ আলিফ (১১) আমার ভাগনি আঞ্জু সহ সকলে কান্নাকাটি ও প্রতিরোধ গড়ে তুললে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। কাউন্সিলর বারিক যাওয়ার সময় বলে যায় এ ঘটনায় মামলা করলে তোমার স্বামীকে হত্যা করা হবে। ঘটনার পর বাড়ির মালিকের সহযোগিতায় উপজেলা আওয়ামীলীগ ও পৌর আওয়ামীলীগের নেতাদের কাছে ঘটনা অবহিত করেছি। আমার স্বামী এ ঘটনার কারনে আমাদেরকে রেখে কর্মস্থল জলঢাকায় চলে গেছেন। আমাকে সন্ত্রাসীরা নজরদারীতে রেখেছে মামলা করতে যেতে দিচ্ছে না।  বর্তমানে আমি নিরাপত্তা হীনতায় ভূগছি।

এ ব্যাপারে বাড়ির মালিক বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের সাবেক উপাদাক্ষ আলহাজ্ব সোলায়মান মিঞা উল্লেখিত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন এবং প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ দাবী করেছেন। এলাকাবাসী জানান বারিক কাউন্সিলর একজন চরিত্রহীন তার বিরুদ্ধে নারী কেলেংকারীর একাধিক ঘটনা রয়েছে, বাড়ি দখলের চেষ্টায় পুজার মুর্ত্তি ভাংচুর ও হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামী।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email