শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে মাদ্রাসার গাছ কাটার ঘটনা ধামাচাপার চেষ্টা।

এন আই মিলন,বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ বীরগঞ্জ মুরারীপুর দাখিল মাদ্রাসার প্রায় ৩ লক্ষ টাকার গাছ বিক্রয়ের সময় জনগন গাছগুলি আটক করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট অভিযোগ দায়ের করেন।

উপজেলার শিবরামপুর ইউনিয়নের মুরারীপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের পুত্র আবু বক্কর সিদ্দিক হোসেন গত ৮ মার্চ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু জাফরের নিকট লিখিত অভিযোগে জানায় মুরারীপুর দাখিল মাদ্রাসার ১৫ টি মেহগনি গাছ একই এলাকার আলহাজ্ব আব্দুল গণি সরকারের পুত্র ও মাদ্রাসার সভাপতি আব্দুল মান্নান এবং মৃত জসিম উদ্দীন শেখের পুত্র সুপার নুর আহমেদ প্রশাসনসহ এলাকাবাসীকে না জানিয়ে যোগসাজসে মাদ্রাসার প্রায় ১৫টি মেহগনি ও কাঁঠাল গাছ পাইকারের নিকট বিক্রয় করে। তারই প্রেক্ষিতে ৮ মার্চ পাইকার গাছগুলি কেটে নিয়ে যাওয়ার সময় জনগণ গাছগুলি আটক করে। এসময় আবু বক্কর সিদ্দিক উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

অপরদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু জাফর ও শিবরামপুর ইউপি চেয়ারম্যান জনক চন্দ্র রায়ে সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, গাছ কাটার ব্যাপারে তাদেরকে কেউ জানায়নি এবং মাধ্যামিক শিক্ষা অফিসার জানান তিনি তদন্ত করেছেন ২/১ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিবেন। গাছগুলি মাঠেই পড়ে রয়েছেন।

অপরদিকে সুপার ও সভাপতির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানায়, মাদ্রাসার ঘর মেরামতের জন্য রেজুলেশন করে গাছগুলি বিক্রয় করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিদ্দিক জানায়, তার অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাধ্যামিক শিক্ষা অফিসারকে তদন্তের জন্য দায়িত্ব প্রদান করেন। তিনি গত ১৩ মার্চ সরজমিনে তদন্ত করেন। তবে গাছ কাটার ঘটনা ধামাচাপার দেওয়া জন্য সুপার ও সভাপতি চেষ্টা চালিয়ে জাচ্ছেন। পাশাপাশি তারা অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছেন।