শনিবার ২ মার্চ ২০২৪ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে মৃত্যুর ১০মাস পর কবর হতে লাশ উত্তোলন

মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ দিনাজপুরের বীরগঞ্জের মৃত্যুর ১০মাস পর মোঃ আব্দুল খালেক নামে এক ব্যক্তির মৃতদেহ আদালতের নিদের্শে কবর থেকে লাশ উত্তোলন করে মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ ইনভিকেশন অব ব্যুরো (পিআইবি)।

আব্দুল খালেক উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর কল্যাণী গ্রামের মৃত মোঃ আবু হানিফ সরকারের পুত্র।

রবিবার সকাল ১১টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ আলম হোসেনের নেতৃত্বে নিজপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর কল্যাণী গ্রামের গুচ্ছ গ্রাম সরকারী কবস্থান হতে মৃতদেহটি উদ্ধার করে পিআইবি। এ সময় মামলা তদন্তকারী অফিসার পিবিআই পুলিশ পরিদর্শক রেজা মানিক, বীরগঞ্জ থানার এসআই মোঃ আযম প্রধানসহ পুলিশ কর্মকর্তা ও পুলিশ সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

মামলার বাদী মৃতের ছেলে মোঃ ওয়াহেস কুরনী জানান, ২০১৫ সালের ১৩ নভেম্বর আমার বাবা রাত ৮টায় ব্যাটারী চালিত অটো রিক্সা যোগে গ্রামের বাড়ী উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর কল্যাণী হতে বীরগঞ্জ পৌর শহরের বাড়ীতে রওয়ানা হয়। পথে একই ইউনিয়নের প্রেমবাজার নামকস্থানে একটি মাইক্রোবাস চাপা দেয়। এতে তিনি গুরুত্বর আহত হন। গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকলে কলেজ হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে সৈয়দপুর রাবেয়া মোড়ে তিনি মারা যান।  মৃত্যুর বেশ কিছুদিন পর জানতে পারি ওয়াকফ সম্পতি ঢোল পুকুর নিয়ে নিজপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল খালেক সরকারের সাথে আমার বাবার দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। আমার বাবার মৃত্যুর পর চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক সরকার ওয়াকফ সম্পত্তি দখল করলে আমি বাধা দেই। এ সময় তিনি আমাকে হুমকি প্রদর্শন করে বলেন যে, তোমার বাবার মতো তোমাকে শেষ করে দেওয়া হবে। এতে আমার সন্দেহ হয় যে, সেদিন মাইক্রোবাস চাপা দিয়ে আমার বাবাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে খালেক চেয়ারম্যান। তাই আমি এ ব্যাপারে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী আদালত-০২-এ  আব্দুল খালেক সরকারকে আসামী করে ২০১৬সালের ২৩মে একটি হত্যা মামলা দায়ের করি।

পিবিআই পুলিশ পরিদর্শক রেজা মানিক জানান, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী আদালত-০২ এর বিজ্ঞ বিচারক মোঃ লুৎফর রহমান মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পিবিআই এর কাছে ন্যাস্ত করেন। তদন্তের স্বার্থে এবং মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে আদালতের নির্দেশ মোতাবেক মৃতদেহ উত্তোলন করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ফরেনসিক পরীক্ষার রিপোর্ট পেলে এ ঘটনার মুল রহস্য জানা যাবে।

Spread the love