শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বীরগঞ্জে মেয়েদের বিরুদ্ধে মায়ের মামলা

এন আই মিলন,বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ বীরগঞ্জের ১ মা ৬ মেয়ে সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে জজ আদালতে জাল দলিল রদ রহিতের ডিক্রী ও ২ লক্ষ ৪৮ হাজার টাকা দাবী করে মামলা দায়ের করেন।

উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের কাচারীপাড়া (নতুন হাট) গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের স্ত্রী বায়তুননেছা (৯০) দিনাজপুর জেলা সহকারী জজ (বীরগঞ্জ) আদালতে ৬ মেয়ে সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে দলিল রদ রহিতের ডিক্রী ও ২ লক্ষ ৪৮ হাজার টাকা দাবী করে মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, বায়তুন নেছার স্বামী জীবিত অবস্থায় নিজপাড়া মৌজার জেএল নং-১৪৬, এসত্র ক্ষতিয়ান নং-৭১৮ দাগ নং-১৬৭১, ১৬৭২ এর ১.০৮ একর জমি দখল থাকা অবস্থায় গত ১৮/১০/১৯৮৯ ইং তারিখে ৯৪৪৮৯ নং হেবানামা দলিল হিসাবে রেজিষ্ট্রি করে দিয়ে ১৯৯৪ ইং সালে মৃত্যুবরণ করেন। গত ২৬/১১/১৯৯৫ ইং তারিখে ৯৫-৯৬ সালের খাজনা খারিজ করে ডিসিআর প্রাপ্ত হয়। বায়তুননেছা (৯০) বছর বয়স হওয়ায় পুত্র হাবিবুর দেখাশুনা করছেন। কিছুদিন পূর্বে বায়তুন নেছার পা ভেঙ্গে যাওয়ায় কবিরাজি চিকিৎসার জন্য মেয়ে জাবেদা তার বাড়িতে নিয়ে যায় এবং সে অশিক্ষিত হওয়ায় চিকিৎসার নামে তাকে ভুল বুঝিয়ে মেয়ে খতোজা, সুফিয়া, কুলসুম, নুরবানু, জাবেদা ও ফিরোজা যোগসাজসে বীরগঞ্জ সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে নানিয়ে গিয়ে সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে মুহুরীর কাজে কর্মরত নাতী জামালপুর গ্রামের ছায়দুর রহমান ও সুফিয়ার পুত্র আকবর আলীর সহযোগীতায় টিপসহি নিয়ে বায়তুনের জমিগুলি লিখে নেয়।

ঘটনা জানার পর গত ২ ফেব্রুয়ারী/১৪ ইং তারিখে বায়তুন বাদী হয়ে ৬ মেয়ে, বীরগঞ্জ সাবরেজিষ্ট্রার, বীরগঞ্জ সহকারী কমিসনার (ভুমি) ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে দিনাজপুর জেলা প্রশাসক সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে বাদীনির পুত্র হাবিবুর রহমান জানায়, আকবরের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা জমিদখলের চেষ্টা চালাচ্ছে এবং মাকে সহযোগিতা করার অপরাধে তাকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভিতি ও হুমকি দিয়ে বেড়াচ্ছে।