শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বেহাল দশা তেঁতুলিয়ার সংযোগ সড়কগুলির

এমএ বাসেত, ষ্টাফ রিপোর্টার : পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় মহাসড়কের সংগে গ্রাম্য হাট-বাজারের সংযোগ সড়কগুলোর বেহাল দশা পরিণত হওয়ায় পবিত্র ঈদ-উল আযহাকে সামনে রেখে জনসাধারণের চলাচলে সীমাহীন দুভোর্গ পোহাতে হচ্ছে।
তেঁতুলিয়া উপজেলায় পর্যটন শিল্পের অপার সম্ভাবনা থাকায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল দেশী ও বিদেশী পর্যটকরা বেড়াতে আসেন। কিন্তু সংযোগ সড়কগুলোর জরাজীর্ণ হওয়ায় আনন্দধারা, মিনাবাজার, নুড়িপাথর কোয়ারি ও চা বাগান দেখতে গিয়ে ভোগান্তিতে পড়েন। উপজেলার নির্বাহী প্রকৌলশী (এলজিইডি) এর তথ্য মতে, তেঁতুলিয়া উপজেলার মোট আয়তন ১৮৯.১২ বর্গ কিলোমিটার। উপজেলায় সড়কের মোট দৈর্ঘ্য ৪শত ৭৩.৩৯ কিলোমিটার। সড়কের শ্রেণি ভেদে উপজেলা সড়ক ৬টি, ইউনিয়ন সড়ক ১৭টি এবং গ্রাম সড়ক এ ক্যাটাগরির ৫৩টি ও বি ক্যাটাগরির ২৫৫টি সহ উপজেলায় মোট সড়কের সংখ্যা ৩শত ৩১ টি। তদ্মধ্যে মোট পাকা সড়কের দৈর্ঘ্য ১ শত ১০.১৮ কিলোমিটার এবং কাঁচা সড়কের দৈর্ঘ্য ৩শত ৬০.৬৪ কিলোমিটার। উপজেলা ৬টি সড়কের মধ্যে তেঁতুলিয়া চৌরাস্তা থেকে ডাকবাংলো, গবরা ব্রিজ থেকে শালবাহান জিসি সড়ক, শালবাহান রোড থেকে শালবাহান হাট আরএন্ডডি সড়ক, বুড়াবুড়ি বাজার থেকে বুড়াবুড়ী ইউনিয়ন পরিষদ জিসি সড়ক, ভজনপুর থেকে দেবনগর বাজার জিসি সড়ক এবং দরগাসিং থেকে তিরনইহাট ইউনিয়ন জিসি সড়কগুলোর কোন কোন স্থানে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া এ এবং বি ক্যাটাগরির গ্রাম্য অর্ধপাকা ও কাঁচা সড়কগুলোর অবস্থা অত্যন্ত নাজুক। তেঁতুলিয়া উপজেলা সদর থেকে তেঁতুলিয়া অডিটরিয়াম কাম কমিউনিটি সেন্টার ভায়া তেঁতুলিয়া পিকনিক কর্ণার ও সাহেবজোত জামে মসজিদ থেকে পুর্ব দিকে বাংলাবান্ধা-তেঁতুলিয়া মহাসড়ক সংযোগ স্থাপনকারী একমাত্র রাস্তাটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এই রাস্তাটি পাকা করণ না হওয়ার কারণে প্রতি বর্ষা মৌসূমে পানিতে রাস্তার মাটি ধসে গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে। ফলে স্কুল-কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রী এবং বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অডিটরিয়ামে যাতাযাতে জনসাধারণের ভীষন দুভোর্গ পোহাতে হয়। একইভাবে তিরনইহাট থেকে শালবাহান হাট ভায়া ভজনপুর, কালান্দিগঞ্জ ও মাঝিপাড়া থেকে শালবাহানহাট এবং গবরা বিজ্র থেকে আজিজনগর-মাথাফাটা,গড়িয়াগছ, বিড়ালীজোত গ্রাম গ্রাম হয়ে তেঁতুলিয়া সদরের সংগে সংযোগ স্থাপনকারী সড়কগুলো সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে সড়কের যত্রতত্র পাকা সিমেন্ট উপরে গিয়ে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তদ্মধ্যে তিরনইহাট থেকে শালবাহান জিসি সড়কটির অবস্থা অত্যন্ত নাজুক। উপজেলা সদরের সংগে সংযোগ স্থাপনকারী এসব সড়কের ছোট-বড় এসব গর্তে বর্ষা মৌসূমে পানি জমে থাকা পথচারী ও সাধারণ যানবাহন চলাচলে নানা ধরণের দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। এছাড়া আধা-পাকা সড়কের কাঁচা-মাটির রাস্তাগুলো দিয়ে সাধারণ যান-বাহনগুলো চলাচল করতে পারছে না। ফলে গ্রামের কৃষক ও সাধারণ জনসাধারণ তাদের নিত্য দিনের কৃষিপণ্য মালামাল নিয়ে ভ্যানে-রিক্সায় হাট-বাজারে নিতে পারেন না। এদিকে এসব সংযোগ সড়কগুলো দিয়ে গ্রামের কৃষকের ছেলে-মেয়েরা বাইসাইকেল যোগে বিভিন্ন স্কুল-কলেজে যেতে ভোগান্তি ও দুভোর্গের শিকার হচ্ছে। উপ-সহকারি প্রকৌশলী (এলজিইডি)-আব্দুর রাজ্জাক সরকার জানান-সংযোগ সড়কের মাঝিপাড়া বিওপি’র দলুর বাড়ি সামনে একটি কালভাট ও দেবনগর বিওপি ক্যাম্পের বড় ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে এবং প্রমানিক পাড়া বি সড়কে একটি কালভাট ভেঙ্গে গেছে।
উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী (এলজিইডি) আ.খ.ম আফছার আলী বলেন, মহাসড়কের সংগে সংযোগকৃত জরাজীর্ণ সড়ক এবং কালভার্ট ও ব্রিজের সার্ভে করে মেরামতের জন্য উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষ সহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন বরাদ্দ না পাওয়ায় সড়কগুলো মেরামত করা সম্ভাব হয়নি।
তেঁতুলিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রেজাউল করিম শাহীন বলেন- তেঁতুলিয়ায় চা বাগান, সমতল ভূমিতে নুড়িপাথর শিল্পের পাথর কোয়ারী, আনন্দধারা, মিনাবাজার, বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন ও দেখার জন্য দেশি ও বিদেশী পর্যটকরা আসেন। পর্যটন শিল্প সহ অন্যান্য ভারী শিল্পের অপার সম্ভাবনাময় তেঁতুলিয়ার রাস্তা ঘাটগুলোর সমস্যা নিরসনে মেরামতের জন্য এলজিইডির মাধ্যমে সার্ভে করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রেরণসহ পঞ্চগড়-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য নাজমুল হক প্রধান (এমপি) কে অবগত করেছি। আশা করি অল্পদিনের মধ্যে রাস্তা ঘাটগুলোর সংস্কার কাজ শুরু হবে এবং জনসাধারণের চলাচলে দুভোর্গ লাঘব হবে।

Spread the love