শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

‘বৈধ গণতান্ত্রিক আন্দোলন’

‘পেট্রোল বোমায় আক্রান্ত মানুষের আর্তনাদকে পূঁজি করে আন্তর্জাতিক মহলের সহানুভূতি অর্জনের আওয়ামী ভণ্ডামি জনগণের সামনে উন্মোচিত হয়েছে অনেক আগেই। বিএনপি জোটের চলমান গণআন্দোলনকে কলুষিত করার হীন চক্রান্ত কখনো সফল হবে না।’

সরকার জনগণের ‘বৈধ গণতান্ত্রিক আন্দোলন’ কে সন্ত্রাসী ও জঙ্গি কার্যক্রম বলে চালিয়ে দেওয়ার প্রচারযুদ্ধ শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।

বুধবার বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতি এ কথা বলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ।

 

দেশব্যাপী নাশকতার সঙ্গে বিএনপি নয়, বরং ক্ষমতাসীনদের দায়ী করে তিনি বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত দৃঢ়ভাবে তথ্য-উপাত্ত সহকারে জাতির সামনে বারেবারেই উপস্থাপন করেছি- এসব জঘন্য পেট্রোল বোমাবাজির সঙ্গে সরকারি দলের নেতা-কর্মীরাই জড়িত। গণতন্ত্র মুক্তির ন্যায্য আন্দোলনকে দমন-পীড়নের সকল অপচেষ্টাই ব্যর্থ হয়ে এখন কেবল নিয়ন্ত্রিত ও দলকানা কতিপয় মিডিয়ার বদৌলতে অনির্বাচিত ও অবৈধ সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ফেরাতে চায়।’

 

সালাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন-দেশের পরিস্থিতি ১৯৭১ সালের মতো। তিনি ঠিকই বলেছেন-কারণ ৭১-এ শাসক শ্রেণির বিরুদ্ধে জনগণের মুক্তি সংগ্রামে জাতীয় মুক্তিযুদ্ধ সংগঠিত হয়েছিল। আর বর্তমানে গণতন্ত্র হত্যাকারী আওয়ামী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে জনগণের অভিপ্রায় অনুযায়ী গণতান্ত্রিক সমাজ পুনঃপ্রতিষ্ঠার দুর্বার আন্দোলন পরিচালিত হচ্ছে।’

নির্দলীয় সরকারের অধীনে ‘সুষ্ঠু নির্বাচনের’ লক্ষ্যে সরকারকে দ্রুত পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়ে সালাহ উদ্দিন বলেন, ‘তবেই জনগণ আপনার নিরাপদ অবতরণের বিষয়টি সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনা করবে।’

Spread the love