শুক্রবার ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বোচাগঞ্জের কৃষকরা শৈত প্রবাহ থেকে রক্ষা পেতে শুকনা বীজতলা ব্যবহারে ঝুকছে

বোচাগঞ্জ থেকে সাজ্জাদ।। চলতি ইরিবোরো আবাদ মৌসুমে বীজতলাকে শৈতপ্রবাহের হাত থেকে রক্ষা করতে দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ উপজেলার কৃষকরা বেড তৈরীর মাধ্যমে শুকনা বীজতলা তৈরীর প্রতি ঝুকছে। বোচাগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ সফিকুল ইসলাম জানান, ইরিবোরো আবাদ মৌসুমে বীজতলা তৈরীর সময় এই অঞ্চলে ব্যাপক শৈতপ্রবাহ হয়ে থাকে। যার ফলে বীজতলা চরম ক্ষতির পাশাপাশি নির্দিষ্ট সময়ে বীজ বড় না হওয়ায় আবাদ হয় কম। অপরদিকে শুকনা বীজতলা শৈত্যপ্রবাহের ক্ষতি থেকে চারা রক্ষা এবং স্বল্প সময়েয সুস্থ ও সবল চারা উৎপাদন করা সম্ভব। কৃষকদের শুকনা বীজতলা তৈরী করতে শুধুমাত্র জৈব্যসার ছাড়া কোন প্রকার সেচ বা সার প্রয়োগ করতে হয় না। যা থেকে সঠিক সময়ে চারা রোপনের সুবিধা পাওয়া যায়। শুকনা বীজতলার চারা ২৫ থেকে ৩০% বেশী উৎপাদন বৃদ্ধি করে। অপরদিকে ভেজা বীজতলা আদর্শ বীজতলা না হলে সঠিক বয়সে রোপন করা সম্ভব হয় না যাতে ফলন হয় কম। বোচাগঞ্জ উপজেলায় এবার শুকনা পদ্ধতিতে ৬.৪ হেক্টর জমিতে শূকনা বীজতলা তৈরীর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হলেও এই পদ্ধতিতে কৃষকদের আগ্রহ থাকায় লক্ষ্যমাত্রার বেশী জমিতে বীজতলা তৈরী হচ্ছে। জমিতে বেড তৈরী করে তাতে জৈবসার প্রয়োগ করে ধানের বীজ ছিটিয়ে উপরে পাতলা পলিথিন ঢেকে দেওয়া হয়। এভাবে মাত্র ২৫ দিনের মধ্যে একটি আদর্শ বীজতলা তৈরী করা সম্ভব।

Spread the love