শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ ২৯শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বোদায় কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে দিন দিন স্বাস্থ্যসেবা বৃদ্ধি পাচ্ছে

মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি ঃ পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে স্বাস্থ্যসেবা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে কমিউনিটি ক্লিনিক গুলো অসহায় মানুষদের ভরসা স্থল হয়ে উঠেছে। উপজেলার ২৩ টি কমিউনিটি ক্লিনিকে প্রতি মাসে সেবা পাচ্ছেন প্রায় ২৫ হাজার মানুষ। গরিব মানুষের দোড়গোড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌছে যাওয়ায় খুশি সংশ্লিষ্ট সবাই। গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষেরা বরাবরই স্বাস্থ্যসেবা গ্রহনে পিছিয়ে ছিলেন। বিশেষ করে অসহায় দরিদ্র রোগীরা অর্থাভাবে জেলা বা উপজেলা সদরে গিয়ে চিকিৎসা সেবা নিতে পারছিলেন না। বেশি অসুখ-বিসুখে অনেকে চিকিৎসকের শরনাপন্ন হলেও স্বাস্থ্যসেবা বিশেষ করে নারীদের স্বাস্থ্য পরিচর্যায় কোন ব্যবস্থা বা আগ্রহ ছিল না পরিবারের। বর্তমান সরকারের গৃহীত নানামুখী স্বাস্থ্য কর্মসূচি প্রত্যন্ত গ্রামের মানুষকেও সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো বিভিন্ন রোগের প্রারম্ভিক চিকিৎসা সেবাও প্রদান করছে। যার মধ্যে রয়েছে নর্মাল ডেলিভারী সহ গর্ভবতী মা ও শিশুদের ওজন ও উচ্চতা মাপা, ডায়াবেটিক পরীক্ষা, নিরাপদ গর্ভধারনের জন্য নানারকম পরামর্শ, মহিলাদের আয়রন ও ভিটামিন এবং শিশুদের ভিটামিন, কৃমি নাশক ও বিভিন্ন প্রকার টিকার ক্যাম্পেইনসহ প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া ক্লিনিকগুলোতে বিনামুল্যে ২৯ প্রকাররের ঔষুধ প্রদান করা হয়। ক্লিনিক পরিচালনার জন্য কমিউনিটি গ্রুপ(১৭) জন ও কমিউনিটি সাপোর্ট গ্রুপ (৫১) জন নিয়ে দুটি গ্রুপ রয়েছে। উপজেলার ৬ নং মাড়েয়া বামনহাট ইউনিয়নের ভোলাবসুনিয়া কমিউনিটি ক্লিনিকে ঔষুধ নিতে আসা কিছু রোগী ও ক্লিনিকের সভাপতি ও ইউপি সদস্য আবুল হোসেন এর সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা বিভিন্ন রোগের প্রাথমিক চিকিৎসা এবং ঔষধ ঠিকমত পাচ্ছেন। সিএইচসিপি মোঃ শাহজাহান আলী নিয়মিত ক্লিনিকে আসেন ও ঔষুধ দেন এবং ঔষুধ পেয়ে ঐ এলাকার মানুষ বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করেন। ভোলাবসুনিয়া কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি মোঃ শাহজাহান আলী আরো জানান যে, কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে যত দিন যাচ্ছে তত রোগীর ভিড় বাড়ছে। ক্লিনিকে যে সব রোগীর চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হচ্ছেনা সেগুলো রোগীকে উপজেলা ও জেলা সদর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে রেফার করে দেয়া হচ্ছে। তিনি অভিযোগ করে জানান, একটি স্বার্থ লোভী চক্র উপজেলার বিভিন্ন কমিউনিটি ক্লিনিকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তাদের কাছে টাকা দাবী করছে এবং সরকারের স্বাস্থ্য সেবার ভাবমুর্তি নষ্ট করার অপ-প্রচার চালাচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে আইনআনুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকতাকেও অবহিত করেন। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক মোঃ মাহামদুল ইসলাম বলেন, অত্র উপজেলার বেশ কয়েকটি কমিউনিটি ক্লিনিকে নর্মাল ডেলিভারী হচ্ছে এবং মানিকপীর কমিউনিটি ক্লিনিকে গত এক বছরে ৮৪ জন গর্ভবতী মায়ের নর্মাল ডেলিভারী করা হয়েছে, এটা পঞ্চগড় জেলার জন্য একটি রেকর্ড। উপজেলার কর্মরত সিএইচসিপিরা বলেন- কমিউনিটি ক্লিনিক পরিচালনার জন্য জেলা সিভিল সার্জন এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তারা খুবই আন্তরিক ও নিয়মিত পরিদর্শন প্রদান করেন। মাননীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী ও ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সকল সিএইচসিপিদের একটাই দাবী চাকুরি জাতীয়করণ করার জন্য। কারন বিগত বিএনপি-জামাত সরকারের আমলে সারা দেশের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়।

 

Spread the love