শনিবার ২৫ জুন ২০২২ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বোদায় যাতায়াত জমিতে চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা

বোদায় ৪৭ বছরের দখলীয় যাতায়াত জমি আইল  বন্ধ করে দিয়েছে বাছেদ আলী গং। জানা গেছে, বোদা উপজেলার ৯ নং সাকোয়া ইউনিয়নের আমির নগর মৌজার (জে এল নং ১০৫) এস এ ১৭৮ নং খতিয়ানের ১৩৫৩ দাগের ২০ শতক জমি মৃত: কুদরত আলীর ছেলে মোঃ আব্দুল গণি দীর্ঘ ৪৭ বৎসর যাবৎ শান্তি পূর্ণ ভাবে ভোগ দখল করে আসছেন। ২০১১/১২ অর্থ বছরে ১২৫৫ নং খারিজ করে তিনি ঐ জমি ভোগ দখল করে আসছেন। সম্প্রতি সাকোয়া ইউনিয়ন ভূমি অফিস তাকে খাজনা পরিশোধ পূর্বক একটি দাখিলা প্রদান করেন। চলমান মাঠ জরিপে আব্দুল গণির নামে ঐ ২০ শতক জমির  ভি ভি খতিয়ান নম্বর ২৯৯। ৪৭ বৎসর থেকে ঐ ২০ শতক জমি ক্রয় করে ধারাবাহিক ভাবে অদ্যবধি ভোগ দখল করে আসছেন।
এমতাবস্তায় একই মৌজার মৃত: দানেশ আলীর ছেলে আব্দুল বাছেদ ও আবদুস সামাদ ঐ জমিতে প্রত্যেক মৌসুমে  আবাদ করতে বাঁধা দিচ্ছে এবং যাতায়াতের পথ/আইলে বড়ইর কাটাঁ দিয়ে বন্ধ করে দেয়। এ ব্যাপারে জমির মালিক আব্দুল গণির সাথে কথা বললে তিনি বলেন দীর্ঘ ৪৭ বৎসর থেকে মূল মালিকের কাছে ক্রয় সূত্রে ভোগ দখল করে খাচ্ছি ঐ ২০ শতক জমির খাজনা, খারিজ, দাখিলা, ডিসিয়ার এবং সর্ব শেষ মাঠ জরিপের পর্”া আপত্তি অফিসার কর্তৃক আমার নামেই রের্কড ভূক্ত হয়। এর পরে বাছেদ ও সামাদ এর সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে ঐ রাস্তাঘাট বন্ধ করে দেওয়ায় আমরা দীর্ঘ দিন আবাদ করতে পারছি না।
রাস্তাঘাট বন্ধ করে দিয়ে শিক্ষকতার মহান পেশাকে আব্দুস সামাদ নিঃসন্দেহে কলংকিত করছেন। কিছু দিন আগে বাদামের আবাদ কামলা দ্বারা ক্ষেত হইতে আনতে গেলে বাছেদ আলীর পরিবারের সকলেই খারাপ ভাষায় গালি গালাজ করে এবং বলে যে, আমাদের আইল দিয়ে কোন ভাবেই যাতায়াত করতে দিব না। ক্ষেত হইতে বাদাম আনতে বাধাঁ প্রাপ্ত হইলে সাকোয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবগত করিলে তিনি স্থানীয়  ইউপি মেম্বারের দ্বারা বাদাম আনতে সহযোগীতা করেন।
কিন্তু বর্তমানে রোপা মৌসুমে রোপা লাগানোর জন্য হাল চাষ করিতে গেলে ঐ রাস্তা পুনরায় বন্ধ করে দেয়, এ ব্যপারে উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউপি চেয়ারম্যান মহোদয় কে পৃথক পৃথক লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখার সময় আব্দুস সামাদ মাষ্টারের যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার মুঠো ফোন টি বন্ধ পাওয়া যায়।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email