বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বোদা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীরা ভোটারের দ্বারে

মোঃ নুরেহাবিব সোহেল,বোদা (পঞ্চগড়) প্রতিনিধিঃ

১৯ ফেব্রুয়ারি উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বোদা উপজেলার সর্বত্র চলছে আলোচনা। হাটবাজার,চা স্টল গুলোতে চায়ের কাপে ঝড় তুলছে উপজেলা নির্বাচন প্রসঙ্গে। ১০ টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে বোদা উপজেলা গঠিত। বোদা উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী অধ্যাপক ফারুক আলম টবি, মোঃ আফজাল হোসেন,মোঃ আব্দুল আজিজ,মো. মজনুর রহমান ও মোঃ মোয়াজ্জেম হুসেন বাবুল,মো. সফিউল্লাহ সফি। ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ৬ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। কর্মী,সমর্থকদের নিয়ে অনেক প্রার্থীই করেছেন দফায় দফায় বৈঠক। এঁকেছেন নির্বাচনি বৈতরণীপার হওয়ার নানান ছক। এদিকে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে পুরোদমে শুরু হয়েছে প্রচারণা। মাইকিং,পোস্টার বিলি,মতবিনিময় গণসংযোগসহ নানভাবে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। গত সংসদ নির্বাচন আমেজহীন থাকায় এবারের উপজেলা নির্বাচনে মানুষের অংশগ্রহন একটু বেশিই লক্ষ্য করা যাচ্ছে। গ্রামেগঞ্জে সৃষ্টি হয়েছে উৎসবমুখর পরিবেশ। আর প্রার্থীরাও ভোটারদের শোনাচ্ছেন নানা আশার বাণী। তবে এবার প্রার্থী নির্বাচনে ভোটাররা অনেক হিসাব-নিকাশ কষছেন। বিশেষ করে গত পাঁচ বছর নির্বাচিত প্রার্থীদের কাজের হিসাব মিলিয়ে এবার ভোট কেন্দ্রে যাবেন বলে জানালেন অনেক ভোটার। মন্নাপাড়ার জমশেদ আলী বলেন যারা কথা এবং কাজের মিল রাখেন তাদেরই মানুষ এবার ভোট দিবেন। বোদা বাজারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী মজনু বলেন যেনতেন লোককে আমরা আর নির্বাচিত করতে চাইনা। এবার বুঝেশুনে ভোট দিব। তবুও প্রার্থীরা চষে বেড়াচ্ছেন উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা,যাচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে। উপজেলা নির্বাচনে মিছিল, শোডাউন, জনসভা,শোভাযাত্রা নিষিদ্ধ করেছে নির্বাচন কমিশন। ধর্মীয় উপাসনালয়ে প্রচারণা, উসকানিমুলক বক্তব্য দেয়া যাবে না মর্মেও নির্দেশ জারি করা হয়েছে। তাই প্রচার-প্রচারণায় অনেক বিঘ্ন ঘটছে প্রার্থীদের। তাদের শুধু মতবিনিময়,মাইকিং আর পোস্টার বিলির মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে হচ্ছে। কিন্তু অনেক প্রার্থী এসব আচরণবিধি লঙ্ঘন করে শোডাউন চালিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এসএসসি পরীক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে প্রার্থীরা মাইকিং একটু কমিয়ে দিলে, পরীক্ষার্থীরা উপকৃত হত বলে অভিভাবকরা অভিমত ব্যক্ত করেন।

Spread the love