বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ব্যতিক্রমী উদ্যোগ ২৩ বছর পর অসহায় বন্ধুদের পাশে রুমা’৯৪

সোহেল সানী, পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে পড়ালেখা শেষে বিদায় নেয়ার ২৩ বছর পর অসহায় বন্ধুদের খুঁজে বের করে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে এক ব্যতিক্রমী আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন রুমা’৯৪ অ্যাসোসিয়েশন (রাজশাহী ইউনিভার্সিটি মাস্টার্স অ্যাসোসিয়েশন)। সংগঠনটি ইতোমধ্যে অনেক অসহায় বন্ধু-বান্ধবীদের অসুস্থতা, শীতার্তদের মাঝে ত্রাণ, করোনাকালীন সাহায্য করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। বন্ধুদের নিয়ে সভা, পুনর্মিলনী, বনভোজন, হারিয়ে যাওয়া বন্ধুদের সাথে যোগাযোগসহ নানাবিধ কাজ করে চলেছে।
মুহাম্মদ আলী অনেকের পরিচিত, চেনা মুখ,ভালো বন্ধু। দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার ৩ নম্বর গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামে বাড়ি।বাবার নাম খোদাবক্স। ১৯৯৪ ব্যাচের (অনুষ্ঠিত ১৯৯৮) বাংলায় অনার্স-মাস্টার্স রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্পন্ন করে নবাবগঞ্জের ভালকা জয়পুর আমিনিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় প্রভাষক বাংলায় চাকরি নেন ১৯৯৮ সালে। নিয়তির নির্মমতায় ২০১৭ সালের ০৩ এপ্রিল এক মরণব্যাধি (এসএলই) চর্মরোগে মারা যান। সংসারে স্ত্রী, দুই ছেলে, এক মেয়ে নিয়ে সেই থেকে নিম্নবিত্ত পরিবারের খরচ জোগানো হিমশিম খেতে হয় স্ত্রীকে। বড় ছেলে নাহিদ ইকবাল রংপুর কারমাইকেল কলেজে ব্যবস্থাপনা বিষয়ে অনার্স ৩য় বর্ষে, মেজো ছেলে মোবাশ্বের আহমেদ ফুয়াদ উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা দেবে, সবার ছোট মেয়ে মালিহা তাসমিন পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে।
উল্লেখ্য, সন্তানরা সব পরীক্ষায় মেধার স্বাক্ষর রেখে চলেছে। স্বামীর অকাল মৃত্যুতে নিম্নবিত্ত পরিবারের খরচ নিয়ে স্ত্রী চরম উৎকণ্ঠায় অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মধ্যে পড়ে যান।
এদিকে, গত ১৯ মার্চ, ২০২১ রাজশাহীর সীমান্তে অবকাশ স্থানে রুমা’৯৪ এর দিনব্যাপী চলে সাধারণ সভা, পারিবারিক পুনর্মিলনী ও বনভোজন-২০২১। আয়োজনে ছিল “রাজশাহী ইউনিভার্সিটি মাস্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (রুমা’৯৪)। অনুষ্ঠানের মূলমন্ত্র ছিল- “ এসো মিলি হৃদয়ের স্পন্দনে, কাটুক সময় ভালোবাসার বন্ধনে।” সে অনুষ্ঠানেই কথা ওঠে অসহায় বন্ধুদের খুঁজে বের করে তাদের পাশে দাড়ানোর। যেই কথা সেই কাজ। এই করোনাকালীন সময়েও মুহম্মদ আলীর পরিবারকে গত দু’ঈদে অর্থনৈতিক সহযোগিতা করে রুমা’৯৪ ।
গত শুক্রবার ২৭আগস্ট যশোর কেশবপুরের অকাল প্রয়াত বন্ধু সুশান্ত দাসের পরিবারের সাথে দেখা করে সমবেদনা জানিয়ে তার স্ত্রীর হাতে আর্থিক সহযোগিতার অর্থ তুলে দেন রাজশাহী ইউনিভার্সিটি মাস্টার্স অ্যাসোসিয়েশন রুমা’৯৪।
গতকাল বৃহস্পতিবার ২ সেপ্টম্বর রাজশাহী ইউনিভার্সিটি মাস্টার্স রুমা’৯৪ অ্যাসোসিয়েশনের ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দল ছুটে আসেন দিনাজপুরে মুহম্মদ আলীর গ্রামের বাড়ি তার পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ করতে। তার স্ত্রী-সন্তানদের সাথে সাক্ষাৎ করে অর্থনৈতিকসহ নানাবিষয়ে খোঁজখবর নেন। মুহম্মদ আলীর স্ত্রীরহাতে আর্থিক ৫০ হাজার টাকা সহযোগিতার অর্থ তুলে দেন এবং অধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম রিপন তার মেজো ছেলে মোবাশ্বের আহমেদ ফুয়াদের বিশ্বদ্যিালয়ে পড়ার জন্য প্রতি মাসে ৩ হাজার করে টাকা দেয়ার ঘোষণা দেন। পরবর্তীতে রুমা’৯৪ এর পক্ষ থেকে সহযোগিতার আশ্বাসও দেয়া হয়।
প্রতিনিধি দলের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডা.মো. কামরুজ্জামান সরকার,অধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম রিপন,সহকারী অধ্যা. মাসুদ কবির সরকার, সহকারী অধ্যা. মো. আব্দুল্লাহ, অধ্যক্ষ ওমর ফারুক, অধ্যক্ষ শাজাহান আলী, সহকারী অধ্যা. জাহিদ সরোয়ার, সহকারী অধ্যা. আমিরুল ইসলাম, প্রভাষক- সাংবাদিক আজিজুল হক সরকার, প্রভাষক আবু হানিফা মন্ডল । প্রতিক্রিয়ায় তারা বলেন, রুমা’৯৪ উদ্দেশ্যই হলো অসহায় বন্ধুদের পাশে দাঁড়ানো। আমাদের রুমার বন্ধুদের নিজস্ব অর্থায়নে আজ মুহম্মদ আলীরপাশে দাঁড়িয়েছি,কালহয়তো অন্য জনের পাশে দাঁড়াবো। এ ধারা অব্যাহত থাকবে।
মুহম্মদ আলীর স্ত্রী বলেন, আমার এমন দুঃসময়ে রুমা’৯৪ পাশে এসে দাঁড়িয়েছে, এ আমার পরম সৌভাগ্য! আমার স্বামীর বন্ধুরা আমার দরজায় এসেছে, তাতে আমার সন্তানরাও খুশিতে আবেগাপ্লুত।

রাজশাহী ইউনিভার্সিটি রমা’র অ্যাসোসিয়েশনেরসাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ সুমন এবংসভাপতি প্রফেসর ড.ইসমাইল হোসেন বলেন, রুমার বন্ধুদের মানসিকতায় আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।মানুষ মানুষের জন্য যদি হয়ে থাকে, তাহলে আমরা বন্ধুরা কেনো বন্ধুর পাশে থাকতে পারবোনা? গোটাদেশেই আমাদের কাজ চলছে।আশাকরছি আগামী দিনে এই সেবার কাজটি আরো সম্প্রসারিত হবে।
নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) অনিমেষ বোস বলেন, এটি একটি মহৎ উদ্যোগ। আপনাদের এই কর্মে অনেকে অনুপ্রণিত হবে। আমিও এই পরিবারকে সাহায্য করতে পারলে আপনাদের কাতারে সামিল হতে পারবো।

৬ আসনের স্থানীয় সাংসদ শিবলী সাদিক এমপি বলেন, রাজশাহী ইউনিভার্সিটি মাস্টার্স অ্যাসোসিয়েশন রুমা’৯৪ যেভাবে বন্ধুদের জন্য কাজ করছে তা অবশ্যই অনুকরণীয়। আমি প্রত্যেক শিক্ষাবর্ষে শতাধিক শিক্ষার্থীদের সহায়তা করে থাকি। মোহাম্মদ আলীর পরিবার চাইলে আমি তার ছেলেমেয়ের পড়ালেখার ব্যাপারে সহযোগিতা করবো।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email