রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভাঙ্গা গড়া জীবন

চন্দন কুমার মিত্র ॥ কখনো ভাঙ্গে, কখনো গড়ি এটাই আমাদের জীবন। দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালের সামনে স্থাপিত দোকানদারদের জীবন হয়ে উঠেছে ভাঙ্গা গড়ার মত। প্রায় ৬০-৬৫টি দোকানের অবৈধ স্থাপনা ছিল জেনারেল হাসপাতালের সামনে। এরা দিন-দুঃখি অসহায় মানুষ। জীবন ও জীবিকার তারনায় এরা বাধা নিশেষধকে উপপেক্ষা করে গড়ে তুলেছিল চা-পানের দোকান সহ আরো নানাবিদ দোকান। গত ২৬ সেপ্টেম্বর সোমবার বেলা সাড়ে ১২টায় অবৈধভাবে গড়ে উঠা দোকানদারদের উচ্ছেদ করেন জেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট। এর প্রতিক্রীয়ায় জেনারেল হাসপাতালের সামনে চায়ের দোকানদার মোঃ এনামুল হকসহ কতিপয় দোকানদার গণ বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে অদ্যাবধি আমরা এখানে দোকান করে আসছি। তিনি তাও বলেন যে, মরহুম এ্যাডঃ এম. আব্দুর রহিম আমাদের সীমনা নির্ধারন করে দিয়েছিলেন যে, জেনারেল হাসপাতালের প্রাচীর থেকে ৩ ফুটের মধ্যে চালা বিহীন দোকান করতে এবং রাস্তার মধ্যে পানি না ফেরতে। তারই নির্দেশমত আমরা অসহায় মানুষ এখানে দীর্ঘদিন যাবৎ দোকন করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছি। আমাদের আয়ের আর অন্য কোন উৎস নেই কিংবা অর্থের কোন সংস্থান নেই যে অন্যত্র গিয়ে বৈধ জায়গায় দোকান করে জীবিকা নির্বাহ করব। আমরা অসহায় দিন দুঃখি মানুষ। জীবনে বেঁচে থাকার তাগিদেই সরকারি জায়গাতেই কোন রকম দোকান করে ছেলে মেয়ে নিয়ে জীবন যাপন করে আসছি। আজ আমাদের মহান নেতা এ্যাডঃ এম. আব্দুর রহিম আমাদের মাঝে নেই। তাই আমাদের দুঃখ্য দুর্দশার কথা কাকে বলব। তবুও উচ্চ মহল এবং জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এর প্রতি আমাদের আকুল প্রার্থনা আমাদের মত যারা দিন দুঃখি অসহায় মানুষ যাদের বাঁচার অবলম্বনই হচ্ছে এই ছোট ছোট দোকান। এগুলো আমাদের কাছ থেকে কেড়ে না নিয়ে আমাদেরকে বেঁচে থাকার জন্য সামন্য জায়গার ব্যবস্থা করার জন্য আপনার দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

Spread the love