রবিবার ১৪ অগাস্ট ২০২২ ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভুয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও ওসি পরিচয়ে ব্যবসায়ীর আড়াই লাখ টাকা ছিনতাই

মো. জাকির হোসেন, রংপুর ব্যুরো চীফ : ভুয়া ইউপি চেয়ারম্যান ও থানার ওসি পরিচয়ে দুই প্রতারক ব্যক্তি দুই ব্যবসায়ীর আড়াই লাখ টাকা ছিনতাই করেছে মর্মে অভিযোগ মিলেছে। সম্প্রতি এ ঘটনা ঘটেছে নীলফামারী-৪ আসনের সাংসদীয় এলাকা কিশোরগঞ্জ এলাকায়। এ ঘটনার ব্যাপারে ব্যবসায়ীরা পার্শ্ববর্তী তারাগঞ্জ উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের মেম্বার কামরুজ্জামান মিলনকে অভিযোগ দিলে প্রতারক দুই ব্যক্তি ঘটনার আপোষ মিমাংসার কথা বলে গত ২৯ অক্টোবর দুপুরে ডেকে নিয়ে যায় চাঁদখানা ইউনিয়নের কামারপাড়ায়। সেখানে মেম্বার মিলনকে ঘটনার ব্যাপারে বাড়াবাড়ি না করার চাপ দেয়া হয়। কিন্তু মেম্বার মিলন তাদের কথায় রাজি না হওয়ায় তাকে এলোপাথারি কুপিয়ে ক্ষতবিক্ষত করেছে বলেও অভিযোগ মিলে।

অভিযোগে জানা যায়, কিশোরগঞ্জ থানার ৫নং চাঁদখানা ইউনিয়নের বগুলাগাড়ি কামারপাড়ার বিধান চন্দ্র (৪০) ও তার স্ত্রী শিল্পী রাণী (২৫) কাপড় কেনার কথা বলে টাঙ্গাইল জেলার ভুয়াপুর থানার পূর্ববাস এলাকার ভ্রাম্যমাণ কাপড় ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর ও মোক্তার নামের দুই ব্যবসায়ীকে নিয়ে যায় তাদের এলাকার ডালিয়া ক্যানেল সংলগ্ন। সেখানে কাপড় ব্যবসায়ীরা পৌঁছাতেই বিধানের স্ত্রী ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে যায় পার্শ্ববর্তী এক গ্রামে। এর পরপরই দুইটি মোটরসাইকেলে ঘটনাস্থলে পৌছায় ৬ জন যুবক। সেখানে বিধান চন্দ্র রায় নিজেকে ইউপি চেয়ারম্যান ও বিষু চন্দ্র রায় নিজেকে থানার ওসি পরিচয় দিয়ে ব্যবসায়ীর কাপড়ের পোটলা সার্চ করে। এসময় দুই ব্যবসায়ীকে গাছের সাথে বেঁধে কাপড়ের পোটলায় থাকা দুই লাখ ৮ হাজার টাকা নিয়ে সটকে পড়ে তারা। পরে অনেক কষ্টে ব্যবসায়ীরা মুক্ত হয়ে ঘটনাটির অবগত করেন তারাগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যানকে। কিন্তু তিনি এ ব্যাপারে কর্ণপাত না করলে পরে ব্যবসায়ীরা তারাগঞ্জ উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের মেম্বার কামরুজ্জামান মিলনকে অভিযোগ দায়ের করেন। ব্যবসায়ীদের এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে মেম্বার মিলন প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অবগত করলে প্রতারক ওই দুই ব্যক্তি আপোষ মিমাংসার কথা বলে মিলনকে নিয়ে যায় ডালিয়া ক্যানেল পাড়ে। সেখানে মেম্বার মিলনকে ঘটনার বাড়াবাড়ি না করার চাপ দিলে মেম্বার মিলন ঘটনাস্থল ত্যাগ করার চেষ্টা চালালে তারা মিলনকে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ক্ষতবিক্ষত করে সটকে পড়ে। পরে পথচারিরা তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় ভর্তি করায় তারাগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। বর্তমানে তিনি মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

এ ঘটনার সত্যতা জানতে কিশোরগঞ্জ এলাকায় গেলে এলাকাবাসী জানান, প্রতারক ওই দুই ব্যক্তি দীর্ঘদিন থেকে অবৈধভাবে ডলারের ব্যবসা চালিয়ে আসছিলো। সেই সাথে তারা চালিয়ে আসছে প্রতারণামূলক কর্মকান্ড। এদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে কেউ সাহসও পায়না। কারণ তারা কিশোরগঞ্জ উপজেলার ৫নং চাঁদখানা ইউপি চেয়ারম্যানের ঘনিষ্ঠ বলেই কেউ প্রতিবাদ করলে তাদের এলোপাথারি কুপিয়ে আহত করে। এছাড়া স্থানীয় থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলাও নেয়া হয়না। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ দাবি করেন এলাকাবাসী।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email