সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ভোগান্তি উপেক্ষা করে ঢাকা ছুটছে মানুষ

চলমান কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেই ১ আগস্ট থেকে রফতানিমুখী শিল্প-কারখানা খুলে দেওয়ার খবরে গ্রাম যাওয়া শ্রমিকদের ঢাকামুখী ঢল নেমেছে।

বিধিনিষেধের তোয়াক্কা না করে শনিবার ভোর থেকেই দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ও বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌপথে দেখা গেছে ঢাকামুখী যাত্রীদের ঢল।

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে আসা যাত্রীরা রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে পৌঁছেছেন হেঁটে, অটোরিকশায় কিংবা মাহেন্দ্রতে চড়ে। যাত্রীবোঝাই ফেরি ছেড়েছে এ ঘাট থেকে। ঢাকা-আরিচা মহাসড়কেও ছিল ঢাকামুখী যাত্রী, ব্যক্তিগত ও ছোটগাড়ির চাপ। যানবাহন পরিবর্তন করে, পণ্যবাহী যানের ছাদে করে বা হেঁটে তাদের ঢাকার পথে রওনা দিতে দেখা গেছে।

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা আঞ্চলিক কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, জরুরি পণ্যবাহী ট্রাক পারাপার করার জন্য সীমিত আকারে ফেরি সার্ভিস চালু রাখার নির্দেশনা রয়েছে। এর মধ্যে যাত্রী উঠে গেলে আমাদের কি করার আছে। মানবিক কারণে জরুরি পণ্যবাহী ট্রাকের সঙ্গে এসব যাত্রীরা পারাপার হচ্ছে।

গত শুক্রবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপনে রফতানিমুখী শিল্প খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায় সরকার। এতে বলা হয়, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় আগামী ১ আগস্ট সকাল ৬টা থেকে রফতানিমুখী সব শিল্প ও কলকারখানা আরোপিত বিধি-নিষেধের আওতাবহির্ভূত রাখা হলো।

গত ১৩ জুলাই মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব রেজাউল ইসলাম স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে ঈদের একদিন পর অর্থাৎ ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত ১৪ দিনের টানা কঠোর বিধি-নিষেধ বা লকডাউনের ঘোষণা দেয় সরকার।

Please follow and like us:
RSS
Follow by Email