শুক্রবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৩ ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ বোদা উপজেলা বাসী

মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বোদা উপজেলা বাসী। মশার উৎপাদ এতই বৃদ্ধি পেয়েছে যে, কাজ কর্ম করা তো দুরের থাক ঠিকমতো স্থির হয়ে বসে থাকতে পারছে না পৌরসভা সহ উপজেলা বাসী। সন্ধ্যা না হতেই ঝাঁকে ঝাঁকে মশা ঘরে প্রবেশ করে সারারাত চালায় তাদের তান্ডবলীলা। পৌরসভা থাকলেও মশা নিধনে পৌর কর্তৃপক্ষের কোন ভুমিকা এখনো চোখে পড়েনি। মশার অত্যাচারের ছাত্র-ছাত্রীরা ঠিকমত পড়াশুনা করতে পারছেনা। এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে কান্তমনি গ্রামের গৃহিনী মরিয়ম বেগম বলেন, তার মেয়ে স্বপ্নার এসএইচসি পরীক্ষা, অথচ মশার অত্যাচারে কয়েল জ্বালিয়েও মশার কামড়ে ঠিকমত পড়াশুনা করতে পারছে না মেয়েটি। তাই পরীক্ষা নিয়ে তিনি ভীষণ চিন্তিত। মশার অত্যাচারে পৌরশহরে সর্দার পাড়ার ফারুক জানান,  মশা হঠাৎ এত বেড়ে গেছে যে রাতে নয়, এখন দিনের বেলাও মশারি টানিয়ে ঘুমাতে হচ্ছে। এবার মশার উৎপাদ প্রচন্ড ভাবে বেড়ে গেছে। তিনি বলেন, শহরের পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেন আবর্জনা ভরা খাল মশার প্রজননের স্থল। শহরের ড্রেন নিয়মিত পরিষ্কার না করার ফলে জলাবদ্ধ নোংরা পানিতে মশার বংশ বিস্তার হচ্ছে। এসব ড্রেন বছরে একবারও পরিষ্কার করা হয় না। আগে পৌরসভা থেকে মশক নিধনের ওষুধ বাড়িতে ড্রেনে ঝোপ ঝাড়ে ছিটানো হতো। এখন তা করা হয় না বলে পৌরসভার নাগরিকরা জানান। তাই এলাকাবাসী পৌর কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবী জানিয়েছেন মশক নিধনে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে।