রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে বোদা পৌরবাসী

মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়)প্রতিনিধি : মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বোদা পৌরসভা ও উপজেলাবাসী। মশার অত্যাচার এতই বৃদ্ধি পেয়েছে যে, কাজ কর্ম করা তো দুরে থাক ঠিকমতো স্থির হয়ে বসে থাকতে পারছে না পৌরসভা সহ উপজেলাবাসী। সন্ধ্যা না হতেই ঝাঁকে ঝাঁকে মশা ঘরে প্রবেশ করে সারারাত চালায় তাদের তান্ডব লীলা। পৌরসভা থাকলেও মশা নিধনে পৌর কর্তৃপক্ষের কোন ভুমিকা এখনো চোখে পড়েনি। মশার অত্যাচারের ছাত্র-ছাত্রীরা ঠিকমত পড়াশুনা করতে পারছেনা। এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বোদা পৌরসদরে আব্দুর রহমান এ প্রতিনিধিকে বলেন, তার মেয়ের এস,এস,সি পরীক্ষা, অথচ মশার অত্যাচারে কয়েল জ্বালিয়েও মশার কামড়ে ঠিকমত পড়াশুনা করতে পারছে না মেয়েটি। তাই পরীক্ষা নিয়ে তিনি ভীষণ চিন্তিত। মশার অত্যাচারে পৌর শহরে দিপু জানান,  মশা হঠাৎ এত বেড়ে গেছে যে রাতে নয়, এখন দিনের বেলাও মশারি টানিয়ে ঘুমাতে হচ্ছে। এবার মশার উপদ্রব প্রচন্ড ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি বলেন, শহরের পানি নিষ্কাশনের জন্য আবর্জনা ভরা ড্রেন মশার প্রজননের স্থল। শহরের ড্রেন নিয়মিত পরিষ্কার না করার ফলে জলাবদ্ধ নোংরা পানিতে মশার বংশ বিস্তার হচ্ছে। এসব ড্রেন বছরে একবারও পরিষ্কার করা হয় না বলে পৌর নাগরিকরা জানান। আগে পৌরসভা থেকে মশক নিধনের ওষুধ বাড়িতে ড্রেনে ঝোপ ঝাড়ে ছিটানো হতো। এখন তা আর করা হয় না। এ ব্যাপারে পৌর প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবু আউয়াল এর দৃষ্টি আকর্শন করা হলে তিনি জানান মশক নিধনের কার্যক্রম অতি শীঘ্রই পরিচালনা করা হবে।

Spread the love