রবিবার ২১ এপ্রিল ২০২৪ ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোবাইল ফোনে ৭ম শ্রেনীর ছাত্রীর সঙ্গে প্রেম শ্রীঘরে ২ সন্তানের জনক ফুলবাড়ীর মামুন।

শেখ সাবীর আলী ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) : নিজেকে মার্স্টাসের ছাত্র পরিচয় দিয়ে ৭ম শ্রেনীর এক মাদরাসা ছাত্রীর সঙ্গে প্রেম করতে গিয়ে এখন জেল হাজতে গেলেন ২ সন্তানের জনক মমিনুল ইসলাম মমিন। তার ঘরে স্ত্রীসহ ৫ ও ৩ বছর বয়সের ২টি কন্যা সন্তান রয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে।

গত মঙ্গলবার ঢাকা সাভার এলাকা থেকে মোবাইল প্রেমিকা মাদরাসা ছাত্রীকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ। একই সাথে অপহরণের অভিযোগে মোবাইল প্রেমিক মমিনুলকে আটক করে পুলিশ। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় দিনাজপুর আদালতে প্রেমিক-প্রেমিকাকে সোপর্দ্দ করা হলে আদালত তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করেন।।

ফুলবাড়ী থানার ওসি এবিএম রেজাউল ইসলাম জানান ফুলবাড়ী উপজেলার চৌকিয়াপাড়া আদমপুর গ্রামের আব্দুল কাদেরের ছেলে মমিনুল ইসলাম মমিন নিজেকে জয়পুরহাট সরকারী কলেজের মার্স্টাস এর ছাত্র পরিচয় দিয়ে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে পাশ্ববর্তী নবগ্রাম মাদরাসার ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রীর সঙ্গে। সেই সর্ম্পক ধরে গত ১ ডিসেম্বর ঐ ছাত্রীকে নিয়ে পালিয়ে যায় সিলেট জেলায়। সেখানে তার প্রেমিক ওই ৭ম শ্রেনীর ছাত্রীকে বিয়ে করে ঢাকা সাভার এলাকায় ঘর সংসার শুরু করে।

এদিকে ওই মাদরাসা ছাত্রীর পিতা আব্দুল জববার বাদি হয়ে গত ২ ডিসেম্বর ফুলবাড়ী থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। সেই মামলার সুত্র ধরে গত ৩০ ডিসেম্বর মঙ্গলবার ঢাকা সাভার এলাকা থেকে মাদরাসা ছাত্রীাসহ তার কথিত প্রেমিক মমিনুল ইসলাম মামুনকে আটক করে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় তাদের উভায়কে দিনাজপুর আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাদের উভয়কে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

Spread the love