শুক্রবার ১২ এপ্রিল ২০২৪ ২৯শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

যথাযথ মর্যাদায় মওলানা ভাসানীর ১৩৪তম জন্মবার্ষিকী পালিত

টাঙ্গাইলে মরহুমের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও রাজধানীতে আলোচনা সভাসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে যথাযথ মর্যাদায় প্রয়াত মজলুম জননেতা মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ১৩৪তম জন্মবার্ষিকী পালিত হয়েছে। মওলানা ভাসানীর জন্মদিন উপলক্ষে আজ শুক্রবার সকালে জেলার সন্তোষে মজলুম এই জননেতার মাজারে বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মরহুমের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে। মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ভাসানির পরিবারবর্গ, ভাসানী আদর্শ অনুশীলন পরিষদ-ঢাকা, ভাসানী ফাউন্ডেশনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন এ পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে। পরে মাজার প্রাঙ্গণে ভাসানী আদর্শ অনুশীলন পরিষদের উদ্যোগে মহান এ নেতার কর্মময় জীবনের উপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা সৈয়দ ইরফানুল বারী।
অধ্যাপক মোহাম্মদ হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ভাসানী ফাউন্ডেশনের সভাপতি খন্দকার নাজিম উদ্দিন, টাঙ্গাইল জেলা বার সমিতির সাবেক সভাপতি গোলাম মোস্তফা মিঞা, ভাসানী ফাউন্ডেশনের মহাসচিব মাহমুদুল হক সানু প্রমুখ। পরে এখানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়।
জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীতে অনুষ্ঠিত পৃথক আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী ছিলেন সাম্রাজ্যবাদ ও আধিপত্যবাদ বিরোধী আন্দোলনের একজন সিপাহসালার। তিনি আজীবন সাধারণ মানুষের শোষণ-বঞ্চনার বিরুদ্ধে সংগ্রাম করেছেন। তারা বলেন, ভাসানী শুধু একটি নাম নয়, তিনি এমন একজন বক্তিত্ব ছিলেন যিনি সকল রাজনৈতিক মতপার্থক্য ভুলে নিপীড়িত, মজলুম মানুষের পাশে দাঁড়াতেন। যার ফলে মওলানা ভাসানী মজলুম জননেতা হিসেসে খ্যাতি লাভ করেন। মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ন্যাপ ভাসানী ও জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক সমাবেশের আয়োজন করে। বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) এ উপলক্ষে ‘বর্তমান রাজনীতি’ শীর্ষক এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনী মিলনায়তনে শুক্রবার বিকেলে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে বিএনএফ সভাপতি আবুল কালাম আজাদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
এ উপলক্ষে বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টি ঢাকা মহনগরী আজ শুক্রবার সকালে শান্তি নগরস্থ পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ‘সাম্রাজ্যবাদ ও আধিপত্যবাদ বিরোধী আন্দোলনে মওলানা ভাসানীর অবদান’ শীর্ষক এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান এডভোকেট আবদুল মোবিন। এছাড়া বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর মহান এই নেতার জন্মদিন উপলক্ষে নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিলনায়তনে আজ শুক্রবার সকালে এক স্মরণসভা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন।
প্রসঙ্গত আবদুল হামিদ খান ভাসানী বিশ শতকে বৃটিশ ভারতের অন্যতম তৃণমূল রাজনীতিবিদ ও গণআন্দোলনের নায়ক, যিনি জীবদ্দশায় ১৯৪৭ সালের সৃষ্ট পাকিস্তান ও ১৯৭১ সালের প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। দেশের মানুষের কাছে ‘মজলুম জননেতা’ হিসাবে সমধিক পরিচিত ছিলেন তিনি। ভাসানীর ১৮৮০ সালের ১২ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জের ধানগড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭৬ সালের ১৭ নভেম্বর মৃত্যুবরণ করেন।

Spread the love