শুক্রবার ২৮ জানুয়ারী ২০২২ ১৪ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রংপুরে ডা. মুরাদের বিরুদ্ধে করা মামলার আবেদন খারিজ

রংপুর প্রতিনিধি : সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে রংপুরে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলার আবেদন খারিজ করেছে আদালত। মামলায় ডা. মুরাদ হাসান ছাড়াও ইউটিউবার মহিউদ্দিন হেলাল নাহিদকেও আসামি করা হয়েছিল।
বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মেয়ে জাইমা রহমান সম্পর্কে ফেসবুক লাইভে অশ্লীল বক্তব্যের অভিযোগে তুলে এই মামলার আবেদন করে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের।
বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরে রংপুর সাইবার ট্রাইবা ট্রাইব্যুনাল আদালতে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাডভোকেট হানিফ মিয়া বাদী হয়ে এই মামলার আবেদন করেন। ছয় ঘণ্টা পর বিকেল সোয়া পাঁচটার দিকে সেই আবেদনটি খারিজ করে দেন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ড. মোহাম্মদ আবদুল মজিদ। 
সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদীপক্ষের আইনজীবী শফি কামাল বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কন্যা ব্যারিস্টার জাইমা রহমানকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অশালীন বক্তব্য উপস্থাপন করেন সরকারের সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। যা রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত ও কোনো ভাবেই প্রত্যাশিত নয়। এমন মানহানিকর বক্তব্য পুরো নারী জাতির প্রতি নোংরা দৃষ্টিভঙ্গির বহিঃপ্রকাশ ও আপত্তিকর। 
আদালতের কাছে আমরা এই মানহানিকর বক্তব্য প্রদানকারীর বিরুদ্ধে আইনগত ভাবে মামলার জন্য আবেদন করা হয়। বিজ্ঞ আদালত বিকেলে মামলার আবেদন খারিজ করে দেন। এই মামলায় ডা. মুরাদ হাসান ছাড়াও  ইউটিউবার নাহিদকে আসামি করা হয় বলে জানান তিনি।
এর আগে বেলা ১২টার দিকে মামলার আবেদনপত্রসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আদালতে দাখিল করেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতৃবৃন্দ। পরে মামলার বাদী অ্যাডভোকেট হানিফ মিয়া সাংবাদিকদের বলেন, সরকারের সদ্য পদত্যাগ করা তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের করা কুরুচিপূর্ণ অশালীন বক্তব্য পুরো নারী জাতিকে অসম্মান করেছে। 
এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের রংপুর জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট একরামুল হক, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফি কামাল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আফতাব উদ্দিন প্রমুখ।

Please follow and like us:
error
fb-share-icon
RSS
Follow by Email