রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রানা প্লাজার অনুদান থেকে বঞ্চিত নিহত ও আহত শ্রমিকদের পরিবার : রওশন

জাতীয় সংসদে অধিবেশনের শুরুতে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাড়িয়ে রওশান এরশাদ বলেন, রানা প্লাজা ধ্বংস হওয়ার পর বিদেশ থেকে ১৩৫ কোটি টাকা অনুদান আসে। এর মধ্যে মাত্র ২৩ কোটি টাকা প্রধানমন্ত্রী কয়েকজন নিহত ও আহত শ্রমিকদের পরিবারের মধ্যে বিলি করেছেন। কিন্তু এখনও অনেকে এ অনুদান থেকে বঞ্চিত রয়েছেন।

 

সোমবার জাতীয় সংসদে অধিবেশনের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ এমন প্রশ্ন তুলে বলেছেন, রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় গার্মেন্টস কর্মীদের জন্য দেওয়া বিদেশি অনুদান গেল কোথায়?

এ সময় তিনি বলেন, গত কয়েকদিন আগে আমার কাছে প্রায় ২০০ আহত শ্রমিক ও নিহতদের আতœীয় স্বজন এসে সহায়তার জন্য অনুরোধ করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে বাকি ১০০ কোটি টাকা দিয়ে এসময় অসহায় আহত শ্রমিক ও নিহতদের পরিবার পরিজনকে সহায়তা করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নের চাকা ঘোরে এসব শ্রমিকের জন্য। এরা না খেয়ে মরলে দেশও অচল হয়ে পড়বে।

সৌদিতে অসহায় শ্রমিকদের দেশে ফেরত আনার দাবি জানিয়ে রওশন এরশাদ বলেন, আমার কাছে সৌদি আরবে অসহায় একজন শ্রমিকের পরিবার আবেদন জানিয়েছেন তাকে সরকারের মাধ্যমে যেন দেশে ফেরত আনা হয়। সৌদিতে তার কাছে প্রায় ২০ লাখ টাকা দাবি করে একটি মাফিয়া গ্রুপ তার ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে।

এসময় তিনি বিদেশে বিভিন্ন সমস্যায় ভুগতে থাকা অসহায় শ্রমিকদের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেন।

পয়েন্ট অব ওয়ার্ডারে দাড়িয়ে সংসদ সদস্য পঞ্চানন বিশ্বাস বলেন, টিএসসির অদুরে মুক্তমনা লেখক অভিজিৎ রায় যেভাবে খুন হলেন তাতে পুলিশের ভূমিকা ছিলো ¯্রফে দর্শকের। মাত্র ৫০-১০০ হাত দুরে দাড়িয়ে তারা তামাশা দেখেছে। তারা অভিজিৎ ও তার স্ত্রীকে রক্ষার চেষ্টা করে নি। এ দেশে পুলিশের তাহলে কি কাজ? তাদের কেন রাখা হয়েছে।

এ সময় তিনি পুলিশের কাজের সমালোচনা করে বলেন, পুলিশকে আরো দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে। তাদের জঙ্গি তৎপরতা বন্ধে বিশেষভাবে ট্রেন্ড করতে হবে। তা না হলে আরো শত শত অভিজিৎকে আমাদের হারাতে হবে।

Spread the love