বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

‘রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় গ্রেনেড হামলা চালানো হয়েছিল’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, হাওয়া ভবনে মুফতি হান্নান, বঙ্গবন্ধুর খুনি মেজর নূর, জামায়াত নেতা আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদ, পাকিস্তানের শীর্ষ সন্ত্রাসী মজিদ ভাটদের নিয়ে বিএনপি নেতারা ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার পরিকল্পনা করেছিলেন। সরকারিভাবে গ্রেনেড সরবরাহ করা হয়েছিল। গভর্নমেন্ট প্রোটেকশনে এ হামলা হয়েছিল।’

মঙ্গলবার রাজধানীর ইস্কাটন গার্ডেনের বিটিসিএল ভবনের সামনে জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ টিঅ্যান্ডটি শ্রমিক ইউনিয়ন (সিবিএ) আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বিএনপির আমলে ২০০৪ সালে ওই গ্রেনেড হামলা হয়েছিল। আপনি (মির্জা ফখরুল) ওই সময় সরকারের মন্ত্রী ছিলেন। আপনি যদি মনে করেন, তারেক রহমান জড়িত ছিলেন না, তাহলে নিশ্চয় জানেন কারা জড়িত। নামের তালিকাগুলো দিন, তদন্ত করা হোক। ২১ আগস্টের হামলা তো আর জজ মিয়া করেনি। তিনি তো শেখ হাসিনার প্রতিপক্ষ ছিলেন না যে তাকে হত্যা করলে জজ মিয়া প্রধানমন্ত্রী হয়ে যাবেন।’

তিনি আরো বলেন, শুধু তারেক রহমান নন, ওই সময়ের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, বিএনপি নেতা আবদুস সালাম পিন্টুও ওই হামলায় জড়িত ছিলেন। বোমা হামলায় অংশগ্রহণকারীদের স্বীকারোক্তিতেই এসব তথ্য বেরিয়ে এসেছে।’

হানিফ বলেন, ‘মির্জা ফখরুল সাহেব, জানি আপনার অনেক কষ্ট। কারণ, আপনি এমন একটি দল করেন, যার প্রতিষ্ঠাতা হত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত, বর্তমান চেয়ারপারসনও হত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত। আর ভবিষ্যতে যাকে আপনারা নেতা হিসেবে চিন্তা করছেন, সেই তারেক রহমান- তিনিও হত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত। আহ! কী রাজনৈতিক দল। ন্যূনতম লজ্জাবোধ থাকলে এই দল থেকে আপনাদের পদত্যাগ করা উচিত।’

বাংলাদেশ টিঅ্যান্ডটি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. শাহনেওয়াজের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের শ্রম ও জনশক্তিবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, কেন্দ্রীয় সদস্য সুজিত রায় নন্দী প্রমুখ।

 

Spread the love