রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ১লা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লালমনিরহাটে অপহরণের ৬ ঘন্টা পর শিশুর লাশ উদ্ধার: আটক ৫

রবিউল হাসান,লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় প্রথম শ্রেণীর শিশু উল্লাস অপহৃতের ৬ ঘন্টা পর লাশ পাওয়া গেছে। সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে উপজেলা চত্ত্বরের একটি পরিত্যক্ত ভবন থেকে শিশুটির গলায় মাফলার প্যাচানে অবস্থার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ সন্দেহ ভাজন ৫ জনকে তাৎক্ষনিক ভাবে আটক করেছে।

 

আটকৃতরা হলেন সজিব হোসেন (১৬) পিতা আমের আলী,জুয়েল (১৮) পিতা,সামসুল হুদা, আলমগীর (১৩) পিতা,মৃত আলী, সোহাগ (১৪) পিতা, মন্জু মিয়া,সৌখিন (১৫) পিতা, সাইফুল ইসলাম।Hatibandha-pp-2

 

এ ব্যাপারে এস,আই (উপ-পরিদর্শক) আনিছুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। আর ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ৫ জনকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, উপজেলা সদরের টিএন্ডটি রোডের বাসিন্দা ব্যবসায়ী নুরুজ্জামানের শিশুপুত্র আব্দুর রহীম উল্লাস নামের শিশুকে বেলা তিনটার দিকে অপহরণ করে দুর্বত্তরা। এরপর বিকেলে নুরজ্জামানের মুঠফোনে ম্যাসেজ দিয়ে অপহরণকারীরা ১ লাখ টাকা দাবি করে। পরে টাকা না পেয়ে অপহরণকারী ওই চক্রটি শিশুটিকে গলায় মাফলার প্যাচিয়ে হত্যা কলে লাশ ঝুলে রেখে যায়। রাত আটটার দিকে ওই চক্রটি তার বাবা মুঠোফোনে ম্যাসেজ দিয়ে অবুঝ শিশু উল্লাসের লাশ উপজেলা ক্যাম্পাসের ভিতরে ওই পরিত্যাক্ত ভবন থেকে উদ্ধারের খবর দেয়। পরে পারিবারিক লোকজনসহ এলাকাবাসীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে অবুঝ শিশু উল্লাসের লাশ দেখতে পেয়ে অনেকে হাউমাউ করে কেঁদে উঠে।

তিনি আরো জানান, রাত ১০ টার দিকে শিশুটির লাশ উদ্ধারে করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

 

তবে থানা পুলিশের হাতে আটকৃতদের দাবি আমরা বাচ্চাটিকে খুঁজে গিয়েছিলাম। পরে সেখানে গিয়ে লাশ দেখতে পেয়ে এলাকাবাসীদের খবর দিলে আমাদের সন্দেহ করা হয়। কিন্তু হাতীবান্ধা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনিছুর রহমান তাদেরকে আটক করে থানায় আনে বলে দাবি গ্রেফতারকৃতদের।

Spread the love