মঙ্গলবার ১২ ডিসেম্বর ২০২৩ ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সংস্কৃতি হচ্ছে মানুষকে সুন্দর করার একটি পথ ও নিদর্শন-এম পি গোপাল

বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকে-ডি রায় বাবুলঃ-বীরগঞ্জে অকাল প্রয়াত শিল্পী পরেশ চন্দ্র রায়ের স্বরণে শিল্প ও শিল্পগোষ্টির মিলন মেলার প্রদীপ প্রজ্জলনের মাধ্যমে মেলার শুভউদ্বোধন কালে দিনাজপুরন -১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জনশীল গোপাল প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেছেন পরেশ ছিলেন পল্লীগাঁয়ের একজন খেটে খাওয়া সাধারন মানুষ। সে জীবিকা নির্বাহের জন্য রিক্সা-ভ্যান চালাতেন। কিন্তু তার মধ্যে যে প্রতিভা ছিল তা হয়তো আমাদের কারো জানা ছিল না। পরেশ একজন রিক্সা চালক হলেও তিনি ছিলেন বিশাল মনের অধিকারী একজন বিত্ববান মানুষ। আমাদের মাটির সংমিশ্রনে সমাজের বাঙ্গালীত্বকে রক্ষার জন্য পরেশ শিল্প জগতে যে ভূমিকা রেখে গেছেন তা কোন দিনই ভূলে যাওয়ার নয়। সংস্কৃতি হচ্ছে মানুষকে সুন্দর করার একটি পথ ও নিদর্শন । যারা মানসিক ভাবে চেতনা থেকে সংস্কৃতিকে ধারণ করেন তারা কখনও খারাপ মানসিকতার মানুষ হতে পারেন না। পরেশকে স্বরনীয় করে রাখতে সংস্কৃতির মাধ্যমে আমাদের হারিয়ে যাওয়া সভ্যতাকে ধরে রাখতে হবে এবং সুস্থ্য ধারার পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তবেই বাঙ্গালীর চেতনাকে এবং আমাদের অহংকারকে পরেশের শিল্প চেতনার মাধ্যমে খুজে পাওয়া যাবে। গত শনিবার রাত্রে উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের কৈকুড়ী গ্রামের কালিমন্দির প্রাঙ্গঁনে অনুষ্টিত পরেশ মেলার উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে   প্রয়াত পরেশ চন্দ্র রায়ের পত্নী ভানু রায়ের সভাপতিত্বে ২ দিন ব্যাপি পরেশ মেলার শুভউদ্বোধনকালে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলাহাজ্ব জাকারিয়া জাকা, নিজ পাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল খালেক সরকার, মেলার স্বপ্নদ্রষ্টা মাইনদ্দিন চিসতি, ডাঃ মোঃ আহাদ আলী (পঞ্চগড়), জেলা শিল্পকলার অফিসার এবং জেলা ও স্থানীয় কবি ও সাহিত্যিকবৃন্দ এ সময় উপস্থিতি ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে প্রয়াত পরেশ চন্দ্র রায়ের কন্যার মনোমুগ্ধু কর নৃত্য পরিবেশন করা হয়। মেলায় লোকজ সংস্কৃতির ঐতিহ্যকে ধরে রাখার জন্য ২ দিন ব্যাপি পালাটিয়া গানের আয়োজন করা হয়।

Spread the love