শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১০ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সরকার ক্ষমতায় এসে গনতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানকে ভেঙ্গে ফেলছে -মির্জা ফখরুল

মো: রবিউল এহসান রিপনঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: সরকার ক্ষমতায় এসে গনতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান গুলোকে একে একে ভেঙ্গে ফেলে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য আট ঘাট বেঁধে নেমেছে। তারা সবার আগে আঘাত করে সংবাদ মাধ্যম গুলোকে নিয়ন্ত্রনে নিয়েছে। আইন শৃঙ্খল বাহিনী ও প্রশাসনকে দলীয় স্বার্থে ব্যবহার করছে। যা গণতন্ত্রকে ধ্বংস করার জন্য বড় অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে। তারা বিচার ব্যবস্থাকে নিয়ন্ত্রন করায় মানুষের আস্থা বিচার বিভাগ থেকে নষ্ট হয়ে গেছে।

রবিবার দুপুরে নিজ বাস ভবনে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, সমস্যা নিরসনে বিরোধী দল ও সরকারের সাথে আলোচনা হওয়া উচিত। তা সুষ্ঠ নির্বাচন, যে নির্বাচনটা হবে অবাধ নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে। যাতে জনগনের প্রতিনিধিত্বশীল সরকার গঠিত হবে। এছাড়া এই সমস্যা নিরসনে আর কোন বিকল্প পথ নেই।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আরো বলেছেন, সরকারের উচিত হবে দ্রুত আলোচনার মধ্য দিয়ে একটা সুষ্ঠ সমাধানের মাধ্যমে রাজনৈতিক দলগুলোর সংকট নিরসন করা। বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে যা দেশের জন্য, জাতির জন্য ও আওয়ামী লীগের জন্যও মঙ্গলকর হবে না।

তিনি বলেন, বাংলাদেশকে একটি অকার্যকর জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করতে এ সরকার সবচেয়ে বড় কাজ করেছে। আজকে এই জঙ্গিবাদকে যারা প্রশয় দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে সুষ্ঠ তদন্ত হওয়া উচিত। যদি সঠিত তদন্ত না হয় তাহলে আমরা জঙ্গিবাদের শেখড়ে গিয়ে পৌছাতে পারবো না। এজন্য বাংলাদেশের সকল দলমতের মানুষকে একত্রিত করে এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সুলতানুর ফেরদৌস ন¤্র, সাধারণ সম্পাদক তৈমুর রহমান, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল্লাহ মাসুদসহ আরো অনেকে।

Spread the love