বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সহিংসতা বন্ধের দাবিতে ব্যবসায়ীদের প্রতীকী অনশন

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ডাকা দেশব্যাপী অনির্দিষ্টকালের টানা অবরোধের মধ্যে তাদের নেতৃত্বাধী ২০ দলীয় জোটের অব্যাহত হরতালের মধ্যে চলমান সহিংসতা বন্ধের দাবিতে প্রতীকী অনশন পালন করেছেন পোশাক ও বস্ত্রখাতের ব্যবসায়ীরা।

শনিবার সকাল ১১টায় থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বিজিএমইএ ভবনের সামনে দিনব্যাপী এই কর্মসূচি পালিত হয়।

তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ এবং বস্ত্রকল মালিকদের সংগঠন বিটিএমএ যৌথভাবে এ কমসূচির আয়োজন করেছে। এই ৩ সংগঠন ছাড়াও পোশাক ও বস্ত্র খাত সংশ্লিষ্ট ১২টি সংগঠনের নেতাকর্মীরা এতে অংশ নিয়েছেন। অনশন কর্মসূচির পাশাপাশি মঞ্চে ব্যবসায়ীরা বক্তৃতা দেন।

এদিকে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অনশনস্থলের পাশের রাস্তায় একটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়। এতে কেউ হতাহত হয়নি। ককটেল বিস্ফোরণের পর অনশনস্থলের আশপাশে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনার পর বিজিএমইএ সভাপতি মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, হরতাল-অবরোধ বন্ধের দাবীতে আমরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু আমাদের এই কর্মসূচিতে বোমা হামলা চালানো হলো। এভাবে বোমাবাজি করে আমাদের আটকানো যাবে না। বোমাবাজদের কাছে আমরা মাথানত করবো না। আমরা ব্যবসা করতে চাই। আমাদের ধ্বংস করবেন না।
হরতাল-অবরোধ ও সহিংসতা বন্ধ না হওয়ার আগ পর্যন্ত ব্যবসায়ীদের এ ধরনের কর্মসূচি চলতে থাকবে বলে তিনি জানান। বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, রাজনীতিবিদদের বলবো আপনারা নিজেরা বসে সমস্যার সমাধান করুন। আমাদের হত্যা করে নয়। অন্য ব্যবসায়ীরা তাদের বক্তব্যে পোশাক খাত বাঁচিয়ে রাখার স্বার্থে চলমান হরতাল-অবরোধ ও সহিংসতা বন্ধের দাবী জানান। তারা বলেন, এভাবে চলতে থাকলে অচিরেই আমরা নিঃস্ব হয়ে যাবো। বাংলাদেশের রফতানি আয়ের সবচেয়ে বড় এই খাত আর ঘুরে দাঁড়াতে পারবে না।

Spread the love